kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ ফাল্গুন ১৪২৭। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১। ১২ রজব ১৪৪২

কালীগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের বেশির ভাগ মাস্টার্সের শিক্ষার্থী

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি   

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০২:০১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কালীগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের বেশির ভাগ মাস্টার্সের শিক্ষার্থী

শিক্ষা লাভের শেষ ধাপ ওরা উত্তীর্ণ হতে পারল না। পেল না সার্টিফিকেট বা চাকরি নামের সোনার হরিণ। তার আগেই জীবনের শেষ ধাপে পৌঁছে গেল।

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার বারোবাজারের তেল পাম্পের কাছে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের বেশির ভাগই মাস্টার্সের শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে। এদের মধ্যে কালীগঞ্জ সুন্দরপুর গ্রামের ইসহাক আলীর ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান (২৫) এমএসএস ফাইনাল পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। পরিবারের সবাই অপেক্ষা করছিল তার জন্য। কিন্তু না! তিনি ফিরলেন লাশ হয়ে। সাদা কফিনে মোড়া লাশটি যখন বাড়ির আঙিনায় ফিরল তখন সবাই বাকরুদ্ধ।

চুয়াডাঙ্গার ডিঙ্গেদহ গ্রামের গৃহবধূ রেশমা খাতুনও একই বাসে পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। সঙ্গে ছিলেন নগদা গ্রামের শুভ। তিনিও মাস্টার্স পরীক্ষা দিয়ে মৃত্যুর মিছিলের সহযাত্রী হন। এই অকালমৃত্যুর ফলে তাদের আর পরীক্ষার রেজাল্ট জানা হলো না।

ঝিনাইদহের সদর উপজেলার নাথকুন্ডু গ্রামের ওয়াহেদ আলীর ছেলে ইউনুস আলী, কালীগঞ্জের রণজিৎ দাসের ছেলে সোনাতন দাস ও কোটচাঁদপুর উপজেলার হরিণদিয়া গ্রামের নতুন মসজিদ পাড়ার মীর মোহাম্মদের ছেলে সোহাগ হোসেন সবাই পরীক্ষা দিয়ে ওই বাসে বাড়ি ফিরছিলেন। এক সঙ্গে ছয় শিক্ষার্থীর মৃত্যুতে এলাকায় নেমে আসে শোকের ছায়া।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা