kalerkantho

রবিবার। ২৮ চৈত্র ১৪২৭। ১১ এপ্রিল ২০২১। ২৭ শাবান ১৪৪২

'করোনাযোদ্ধা' আন্তর্জাতিক সম্মাননা পেলেন হাবিপ্রবি রেজিস্ট্রার

অনলাইন ডেস্ক   

১ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৭:১৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'করোনাযোদ্ধা' আন্তর্জাতিক সম্মাননা পেলেন হাবিপ্রবি রেজিস্ট্রার

কভিড-১৯ (করোনা) যোদ্ধা আন্তর্জাতিক সম্মাননা-২০২০ পেয়েছেন দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) ও মেডিসিন সার্জারি অ্যান্ড অবস্টেট্রিক্স বিভাগের অধ্যাপক বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. মো. ফজলুল হক।

নেপাল-বাংলাদেশ বন্ধু সংঘের পক্ষ থেকে এই সম্মাননা ক্রেস্ট ও সনদ প্রদান করা হয়। এতে বলা হয়, সমগ্র বিশ্ব যখন সঙ্কটাপন্ন এই পরিস্থিতিতে বিচ্ছিন্ন অবস্থায় রয়েছে, তখন মানবজাতির কল্যাণে কভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে সুরক্ষা সচেতনতা প্রচার ও লকডাউনকালীন সমাজসেবামূলক কাজে আপনার অসামান্য অবদান এবং নিঃস্বার্থ প্রচেষ্টা ছিল প্রশংসনীয়। আমরা আপনাকে অভিবাদন জানাই।

এ ব্যাপারে বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক ডা. মো. ফজলুল হক বলেন, আমি নেপাল-বাংলাদেশ বন্ধু সংঘকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই। সব সময়ই নিজের সর্বোচ্চটুকু দিয়ে আমি চেষ্টা করি নিজের দায়িত্ব ও কর্তব্যটুকু সঠিকভাবে পালন করার। এই করোনা মহামারীতেও আমি সেই কাজ-ই করেছি। অহেতুকভাবে কোনও সময় নষ্ট না করে একজন লেখক হিসেবে লেখনীর মাধ্যমে করোনায় করণীয় সম্পর্কে সচেতনতা তৈরি ও  ভেটেরিনারিয়ান ডাক্তার হিসেবে গবাদি-পশুর বিভিন্ন রোগ ব্যাধি সম্পর্কে পরামর্শ দিয়ে মানুষের উপকার করার চেষ্টা করেছি। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার হিসেবে চেষ্টা করেছি নির্ধারিত সময়ের চেয়ে অফিসের কাজে বেশি সময় দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজগুলো এগিয়ে নিতে, যাতে করে করোনা পরবর্তী অতিরিক্ত কাজের চাপের কারণে কারও ভোগান্তি তৈরি না হয়। এছাড়া ব্যক্তিগতভাবে যতটুকু পেরেছি আর্থিক অনুদান প্রদানের মাধ্যমে বিভিন্ন সমাজসেবামূলক সংগঠন সমূহের সহযোগিতায় গরীব-অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর পাশাপাশি স্বেচ্ছাসেবামূলক বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ডেও স্বশরীরে উপস্থিত থাকার চেষ্টা করেছি।

এর আগে বিসিএস ক্যাডার সার্ভিসে কর্মরত থাকাকালীন ডাকাত দলের দুই সদস্যকে হাতে নাতে ধরে পুলিশে সোপর্দ করায় বীরত্ত্বের সম্মাননা হিসেবে তিনি একটি এসবিবিএল গান (SBBL GUN) পুরষ্কার লাভ করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা