kalerkantho

রবিবার। ২৮ চৈত্র ১৪২৭। ১১ এপ্রিল ২০২১। ২৭ শাবান ১৪৪২

বগুড়ায় নির্বাচনপরবর্তী সহিংসতা, হামলা-ভাঙচুর

শাজাহানপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি   

৩১ জানুয়ারি, ২০২১ ১৯:২৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বগুড়ায় নির্বাচনপরবর্তী সহিংসতা, হামলা-ভাঙচুর

বগুড়ার গাবতলী পৌরসভা নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় বিজয়ী ও পরাজিত দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে পাল্টাপাল্টি হামলা-ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় উভয় পক্ষের মহিলাসহ চারজন গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে দুজন বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

গুরুতর আহতরা হলেন, ৭ নম্বর ওয়ার্ডের তরফমেরু মধ্যপাড়ার তফিজ উদ্দিন প্রামানিকের ছেলে ভ্যানচালক সবুজ (৩০) এবং একই এলাকার মহসিন আলীর ছেলে টাইলস মিস্ত্রি রানা (৩২)। অপর পক্ষের আহতদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। রবিবার বিকেলে পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের তরফমেরু মধ্যপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার বগুড়ার গাবতলী পৌরসভা নির্বাচনে ৭ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক গোলাম রব্বানী রতন উটপাখি প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হন। রবিবার দুপুরে পরাজিত প্রার্থী যুবদল নেতা সোহেল রানা ও তার সমর্থকরা বিজয়ী কাউন্সিলর গোলাম রব্বানী রতনের সমর্থক রাসেলের ওপর হামলা করে। খবর পেয়ে বিজয়ী কাউন্সিল গোলাম রব্বানী রতনের সমর্থক রানা (৩২) ও সবুজ প্রামানিক (৩০) ঘটনাস্থলে গেলে পুনরায় তাদের ওপর হামলা করে পরাজিত প্রার্থী সোহেল রানার সমর্থকরা। এ সময় রামদা ও চাপাতির কোপে রানার গোপনাঙ্গে এবং সবুজের হাটু ও পিঠে গুরুতর আহত হয়। এই খবর ছড়িয়ে পড়লে বিজয়ী কাউন্সিল গোলাম রব্বানী রতনের সমর্থকরা পরাজিত প্রার্থী সোহেল রানার সমর্থক তাহের, নজরুল ও মানিকের বাড়িতে গিয়ে ভাঙচুর করে। এ ছাড়াও ফারুক নামে এক সমর্থকের সিএনজিচালিত অটোটেম্পো ও অপর এক ব্যক্তির মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে তারা। এ ঘটনায় বিজয়ী কাউন্সিলর ও পরাজিত প্রার্থীর মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাদের পাওয়া যায়নি।

গাবতলী মডেল থানার ওসি নুরুজ্জামান জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোনো পক্ষই অভিযোগ করেনি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা