kalerkantho

শুক্রবার । ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১। ১৩ রজব ১৪৪২

মায়ের বকুনিই কাল হলো হাবিবার

শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি   

৩০ জানুয়ারি, ২০২১ ২১:১৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মায়ের বকুনিই কাল হলো হাবিবার

মায়ের বকুনিই কাল হলো ছোট্ট মেয়ে হবিবা আক্তার তিশার (১০)। চরম অভিমানে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে সে। শনিবার বিকেল পাঁচটার দিকে তাকে ঘরের আড়ায় ঝুলতে দেখে পরিবারের লোকেরা। দ্রুত নামিয়ে হসপাতালে নিয়ে গেলে সন্ধ্যা ৬টার দিকে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়নের বকুলতলা গ্রামে।

নিহত হাবিবা আক্তার তিশা ওই গ্রামের হবিবুল্লাহর মেয়ে। সে উপজেলা সদরের শরণখোলা আইডিয়াল ইনস্টিটিউটের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী ছিল। এ ঘটনায় শরণখোলা থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

নিহত শিশুটির মামা মো. মিজানুর রহমান জানান, পড়তে না বশায় বিকেলে হাবিবাকে বকাঝকা করে তার মা। এতে তার অভিমান হয়। বাবা ছিলেন উপজেলা সদরে। মাও ঘরে ছিলেন না তখন। সেই ফাঁকে অভিমাানি মেয়েটি গলায় ওড়না পেচিয়ে ঘরের আড়ার সঙ্গে ফাঁস দেয়। পরে হাসপাতালে নেওয়া হলে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তার বোনের তিন মেয়ের মধ্যে হাবিবা সবার বড়।

শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইদুর রহমান জানান, শিশু আহত্মহত্যার খবর শুনে হাসপাতালে পুলিশ পাঠানো হয়। এ ঘটনায় কোনো অভিযোগ না থাকায় একটি অপমৃত্যু মামলা রুজু করে শিশুটির লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা