kalerkantho

সোমবার । ১৬ ফাল্গুন ১৪২৭। ১ মার্চ ২০২১। ১৬ রজব ১৪৪২

সিদ্ধিরগঞ্জে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, গ্রেপ্তার ২

সিদ্ধিরগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

২৯ জানুয়ারি, ২০২১ ২১:১৩ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সিদ্ধিরগঞ্জে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, গ্রেপ্তার ২

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজী ইপিজেডে জুট ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ নেওয়াকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় একটি পক্ষ মামলা দায়ের করেছেন। দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় শুক্রবার দুপুরে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতির সহোযোগী আক্তার ওরফে পানি আক্তার বাদী হয়ে ২০ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ২০-৩০ জনকে আসামি করে মামলাটি দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পরপরই পুলিশ অভিযান চালিয়ে দু’জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন আদমজী সুমিল পাড়া এলাকার হবু উল্লাহর ছেলে জামাল কসাই (৪২) ও ভান্ডারিপুল এলাকার রিপন মিয়ার ছেলে আপন (১৮)। এদিকে দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। স্থানীয়রা আবারো সংর্ঘের আশঙ্কা করছেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজী ইপিজেডে দীর্ঘদিন ধরে চলা ব্যবসায়িক দ্বন্দ্ব চলছিল। মামলার বাদী পানি আক্তার উল্লেখ করেন- বিবাদীরা প্রায় সময়ই তার কাছ থেকে চাঁদা দাবি করে আসছিল। তাদের দাবিকৃত চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বেশ কয়েকজন মিলে পূর্বপরিকল্পিতভাবে মামলার বাদী ও তার সহযোগীদের উপর হামলা চালায়। এতে বাদী পক্ষের বেশ কয়েকজন আহত হয়। 

এদিকে নাসিকের সাবেক কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম মন্ডল জানান, আমার সমর্থকদের কুপিয়ে কাউন্সিলর মাতিউর রহমানের সমর্থকরা জখম করেছে। আহত অবস্থায় তারা চিকিৎসাধীন রয়েছে। আমি এ ব্যপারে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি। তিনি অভিযোগ করে বলেন, আমার কর্মী-সমর্থকরা মার খাওয়া সত্বেও এবং ক্ষমতাসীন দলের কর্মী-সমর্থক হওয়া সত্বেও পুলিশ আমার কর্মী সমর্থকদের গ্রেফতার করতে অভিযান চালাচ্ছে। এতে আমার কর্মী সমর্থকরা হয়রানির শিকার হচ্ছে। আদমজী ইপিজেডের ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, সংঘর্ষের আগে গত রবিবার ইপিজেডের অভ্যন্তরে দুই পক্ষের মধ্যে হাতাতির ঘটনা ঘটে। এ থেকেই সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। ব্যবসায়ীদের প্রশ্ন কি করে ইপিজেডের অভ্যন্তরে সন্ত্রাসীরা মহড়া দেয়। এ ব্যপারে আদমজী ইপিজেডের ব্যবসায়ীরা নিরপেক্ষ তদন্ত দাবি করেছেন।

এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মশিউর রহমান জানান, আদমজী ইপিজেডের সংঘর্ষের ঘটনায় শুক্রবার সাকালে আক্তার নামে একজন বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। এ ঘটনায় দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অপর আসামিদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার সকালে আদমজী ইপিজেডে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৬নং ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি ও সাবেক কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম মন্ডলের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছে। সংঘর্ষে দেশীয় অস্ত্রের মহড়া দেখে এলাকার জনাসাধারনের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পরে। অভিযোগ রয়েছে, বর্তমান কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি, তার আত্মীয়-স্বজন ও সহযোগীরা আদমজী ইপিজেডের ২৬ প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে প্রভাব খাটিয়ে ব্যবসা করে আসছে। এতে করে বঞ্চিত আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেছাসেবক লীগসহ সরকার দলীয় সমর্থক ও নেতাকর্মীরা তার উপর দিন দিন ফুসে উঠছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা