kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭। ৪ মার্চ ২০২১। ১৯ রজব ১৪৪২

শিক্ষা বিস্তারে ঐতিহ্যবাহী গোলন্দাজ পরিবার

নজরুল ইসলাম, গফরগাঁও (ময়মনসিংহ)   

২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ২২:১৩ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



শিক্ষা বিস্তারে ঐতিহ্যবাহী গোলন্দাজ পরিবার

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে যুগ যুগ ধরে শিক্ষা বিস্তারে অনন্য ভূমিকা পালন করছে ঐতিহ্যবাহী গোলন্দাজ পরিবার। পৌর শহরের প্রাণকেন্দ্রে বহুমূল্যবান জমির উপর চারটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলে এক অনন্য নজির স্থাপন করেছে।

গোলন্দাজ পরিবারের প্রাণ পুরুষ মরহুম রোস্তম আলী গোলন্দাজ ১৯৫০ সালে গফরগাঁও কলেজ প্রতিষ্ঠায় (সরকারি অনার্স কলেজ) অনুদান দিয়েছিলেন। পরবর্তীতে নিজে একটি মাদরাসা ও একটি উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন। 

এই পরিবারের গৌরব প্রয়াত জননেতা আলতাফ হোসেন গোলন্দাজ একবার উপজেলা চেয়ারম্যান ও তিনবার সংসদ সদস্য থাকার সময় আলতাফ গোলন্দাজ ডিগ্রি কলেজ প্রতিষ্ঠাসহ উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সার্বিক উন্নয়ন করেছেন। 

গোলন্দাজ পরিবারের তৃতীয় প্রজন্ম বর্তমান সংসদ সদস্য ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল স্বভাবতই শিক্ষানুরাগী। তিনিও পিতামহ ও পিতার পদাঙ্ক অনুসরণ করে উপজেলার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর অবকাঠামোগত ব্যাপক উন্নয়নসহ শিক্ষা বিস্তারে নিরন্তর কাজ করছেন।

জানা যায়, উপজেলার ঐতিহ্যবাহী গোলন্দাজ পরিবারের প্রাণ পুরুষ রোস্তম আলী গোলন্দাজ ছিলেন গফরগাঁওয়ের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী। ব্যবসার পাশাপাশি তিনি ছিলেন শিক্ষানুরাগী। শিক্ষা বিস্তারে উপজেলা সদরে বহু মূল্যবান জমি দান করে একাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন। ১৯৫০ সালে গফরগাঁও কলেজ প্রতিষ্ঠায় (গফরগাঁও সরকারি কলেজ) তিনি ৫০ হাজার টাকা অনুদান দিয়ে অংশগ্রহণ করেন। ১৯৫১ সালে গফরগাঁও নতুন বাজার এলাকায় প্রতিষ্ঠা করেন গফরগাঁও জেএম (বর্তমানে কামিল) মাদরাসা, একটি মসজিদ এবং ১৯৬৭ সালে পাশেই প্রতিষ্ঠা করেন রোস্তম আলী গোলন্দাজ উচ্চ বিদ্যালয়। এই বিদ্যালয়টি বর্তমানে উপজেলার অন্যতম সেরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। প্রায় আড়াই হাজার শিক্ষার্থী পড়ালেখা করছে। 

রোস্তম আলী গোলন্দাজের বড় ছেলে আলতাফ হোসেন গোলন্দাজ একবার উপজেলা চেয়ারম্যান ও টানা তিনবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে গণমানুষের রাজনীতির মাধ্যমে অনন্য ভাবমূর্তী গড়ে তোলেন। তিনি এলাকার যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অবকাঠামোগত উন্নয়নসহ শিক্ষা প্রসারে ব্যাপক অবদান রাখেন। ১৯৮৮ সালে পৌর শহরে প্রতিষ্ঠা করেন আলতাফ গোলন্দাজ ডিগ্রি কলেজ। প্রয়াত জননেতা আলতাফ হোসেন গোলন্দাজ পিতার নামে একটি শিশু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলার স্বপ্ন দেখেছিলেন। কিন্তু ২০০৭ সালে অসুস্থতাজনিত কারণে তিনি মারা যাওয়ায় সেই স্বপ্ন পূরণ হয়নি। জননেতা আলতাফ হোসেন গোলন্দাজের মৃত্যুর পর তার কনিষ্ঠ পুত্র ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল রাজনীতিতে প্রবেশ করে পিতার মতই তিনি গণমানুষের মন জয় করেন এবং একবার উপজেলা চেয়ারম্যান ও টানা দুইবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। সংসদ সদস্য ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল পিতার স্বপ্ন পূরণ করতে ২০১২ সালে প্রতিষ্ঠা করেন রোস্তম আলী গোলন্দাজ কিন্ডার গার্টেন স্কুল। এ ছাড়াও তিনি উপজেলার প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে অসংখ্য বহুতল ভবন নির্মাণ করে শিক্ষা বিস্তারে অনন্য নজির স্থাপন করেছেন। 

উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও জেএম কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ আতাউর রহমান বলেন, গফরগাঁওয়ের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নসহ শিক্ষা বিস্তারে ঐতিহ্যবাহী গোলন্দাজ পরিবারের ভূমিকা অনস্বীকার্য। এই পরিবারের প্রতিষ্ঠিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো হাজার হাজার শিক্ষার্থীকে আলোকিত করছে। আমাদের নেতা সংসদ সদস্য ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল পারিবারিক ঐতিহ্যগত কারণেই উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সার্বিক উন্নয়ন ও শিক্ষা বিস্তারে অনন্য নজির স্থাপন করেছেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা