kalerkantho

শনিবার । ২১ ফাল্গুন ১৪২৭। ৬ মার্চ ২০২১। ২১ রজব ১৪৪২

মোংলা বন্দরে ২ বিদেশি জাহাজ ক্ষতিগ্রস্ত, বন্দরে আসতে অনাগ্রহ

মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি   

২৩ জানুয়ারি, ২০২১ ১৮:৪৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মোংলা বন্দরে ২ বিদেশি জাহাজ ক্ষতিগ্রস্ত, বন্দরে আসতে অনাগ্রহ

ফাইল ছবি

মোংলা বন্দর জেটিতে ভিড়া দুইটি বিদেশি বাণিজ্যিক জাহাজ দুর্ঘটনার শিকার হয়েছে। বন্দরের পশুর চ্যানেলের জেটির সামনে নাব্যতা কম থাকায় একটি জাহাজ কাত হয়ে পড়েছে। অপরদিকে জেটিতে ফিনডার (একধরনের রাবারের বয়া) না থাকায় আঘাত ও ঘষায় আরেকটি জাহাজের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এতে ক্ষতিগ্রস্ত জাহাজের ক্যাপেন্ট বন্দর চেয়ারম্যান ও হারবার মাস্টারের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

জাহাজ দুইটির স্থানীয় শিপিং এজেন্ট জানায়, পাথর বোঝাই এমভি তুহিনা নামক বিদেশি জাহাজটি গত ১৮ জানুয়ারি বন্দরের ৭নম্বর জেটিতে ভিড়ে। জেটিতে থাকা অবস্থায় গত বৃহস্পতিবার সেখানে নাব্যতা সংকটের কারণে জাহাজটি বাঁধারত দুইটি মুরিংরোপ ছিঁড়ে গিয়ে ওই জাহাজটি কাত হয়ে পড়ে। বর্তমানে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। 

জাহাজটির স্থানীয় শিপিং এজেন্ট আল সাফা শিপিং লাইন্সের খুলনাস্থ ম্যানেজার সাধন কুমার চক্রবর্তী বলেন, বন্দর জেটির সম্মুখভাগে ৭ মিটার গভীরতা রয়েছে বলে বন্দর কর্তৃপক্ষের ঘোষণা রয়েছে। কিন্তু জাহাজটি সেখানে রাখার পর দেখা গেছে ৪ মিটার সাড়ে ৪ মিটার গভীরতা রয়েছে। যার ফলে ভাটার সময় জাহাজটি কাত হয়ে যায়।

অপরদিকে রুপপুর পারমাণবিক কেন্দ্রের মেশিনারী নিয়ে এমভি ইউ এইচ এল ফোকাস নামক জাহাজটি বৃহস্পতিবার ৯নম্বর জেটিতে ভেড়ার সময় জেটির বাহিরের অংশে (ফিনডার) না থাকায় আঘাত ও ঘষায় জাহাজটির বাহিরের অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। শিপিং এজেন্ট অলসিস এর স্থানীয় প্রতিনিধি সাখাওয়াত হোসেন মিলন বলেন, ক্ষয়ক্ষতি উল্লেখ করে এই জাহাজের ক্যাপ্টেনও বন্দর কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগ (লেটার অফ পোর্টেস্ট) দিয়েছেন।

দুর্ঘটনার শিকার জাহাজের ক্যাপ্টেনরা জাহাজ মালিকদের ক্ষয়ক্ষতির কথা জানিয়েছেন। এ বন্দর ব্যবহারেও অনিহা প্রকাশ করছেন তারা।

বন্দরের হারবার মাস্টার কমান্ডার ফখরউদ্দিন বলেন, এমভি তুহিনা জাহাজের ক্যাপ্টেন অভিযোগ দিয়েছে ভাটার সময়ে তার জাহাজের তলদেশ মাটিতে আটকে যাচ্ছে। কিন্তু গত এক মাসে জেটিতে আরো যে জাহাজগুলো ছিলো তাদের কোনো অভিযোগ ছিলো না। দুই এক দিনের মধ্যে জেটি এলাকায় নতুন করে ড্রেজিংয়ে কাজ শুরু হবে।

অপরদিকে জেটিতে ফিনডার না থাকার ব্যাপারে তিনি বলেন, ফিনডার লাগানো বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এর মধ্যে যতগুলো জাহাজ আসবে তারা একটু সাফার করবেই।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা