kalerkantho

সোমবার । ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭। ৮ মার্চ ২০২১। ২৩ রজব ১৪৪২

কুলাউড়ায় স্বপ্নের বাড়িতে ওঠার অপেক্ষায় ১১০ ভূমিহীন পরিবার

মাহফুজ শাকিল, কুলাউড়া থেকে   

২১ জানুয়ারি, ২০২১ ২০:২৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কুলাউড়ায় স্বপ্নের বাড়িতে ওঠার অপেক্ষায় ১১০ ভূমিহীন পরিবার

আর মাত্র দুই দিন বাকি। 'আশ্রয়নের অধিকার, শেখ হাসিনার উপহার' ২৩ জানুয়ারি মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে মাথা গোঁজার ঠাঁই ভূমিসহ একটি পরিপূর্ণ ঘর পাচ্ছেন মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার ১১০ ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মানুষ। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে তৈরি হচ্ছে এসব গৃহহীনদের জন্য স্বপ্নের বাড়ি। চারিদিকে ইটের দেয়াল এবং মাথার ওপরে দেওয়া হচ্ছে সবুজ টিনের ছাউনি। তাদের সেই কাঙ্ক্ষিত স্বপ্ন বাস্তবে প্রতিফলিত হচ্ছে শনিবার। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সারাদেশের ন্যায় কুলাউড়ায় নির্মিত এই ঘরগুলো উদ্বোধন করবেন। প্রধানমন্ত্রীর এই কার্যক্রমকে সফল করতে স্থানীয় প্রশাসন বিরামহীনভাবে পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। এর আগে গৃহনির্মাণ কাজ পরিদর্শন করে গেছেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক (উপসচিব) মো. আলী নেওয়াজ রাসেল, মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান। ঘরের কাজের সার্বিক তদারকি করছেন উপজেলা চেয়ারম্যান এ কে এম সফি আহমদ সলমান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ টি এম ফরহাদ চৌধুরী, সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাজরাতুন নাঈম, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. শিমুল আলী। সহযোগিতা করছেন সংশ্লিস্ট এলাকার ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তাসহ স্থানীয় চেয়ারম্যান-মেম্বারবৃন্দ। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ টি এম ফরহাদ চৌধুরী বলেন, জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার হিসেবে সারাদেশের ন্যায় কুলাউড়ায় ১১০ ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। উপজেলা টাস্কফোর্স কমিটির মাধ্যমে উপকারভোগী নির্বাচন করা হয়। ঘরের কাজ শেষ এখন শুধু আনুষ্ঠানিকভাবে উপকারভোগীদের কাছে স্বপ্নের বাড়িগুলো হস্তান্তর করা হবে।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ কে এম সফি আহমদ সলমান বলেন, কুলাউড়ায় গৃহহীন কোনো পরিবার রাখা হবে না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী পর্যায়ক্রমে উপজেলার সকল ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমিসহ ঘর নির্মাণ করে দেওয়া হবে। 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা