kalerkantho

বুধবার । ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭। ৩ মার্চ ২০২১। ১৮ রজব ১৪৪২

জন্ম নিবন্ধন সনদ নিতে আসা পোশাককর্মীকে তথ্যসেবা কেন্দ্রে ধর্ষণ!

জামালপুর প্রতিনিধি   

১৯ জানুয়ারি, ২০২১ ১৯:৩৩ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



জন্ম নিবন্ধন সনদ নিতে আসা পোশাককর্মীকে তথ্যসেবা কেন্দ্রে ধর্ষণ!

জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলায় জন্ম নিবন্ধন সনদ নিতে গিয়ে তথ্যসেবা কেন্দ্রে ধর্ষণের শিকার হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন এক নারী (২০) পোশাককর্মী। গত ১৪ জানুয়ারি সন্ধ্যায় উপজেলার নিলাক্ষিয়া ইউনিয়ন পরিষদে ধর্ষণের ঘটনায় গতকাল সোমবার (১৮ জানুয়ারি) রাতে মামলা দায়ের করা হয়। মামলার পর প্রধান আসামি নিলাক্ষিয়া ইউনিয়ন পরিষদ তথ্যসেবা কেন্দ্রের উদ্যোক্তা নাজমুল হাসান বাবুকে (২৬) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মামলাটির অপর আসামি ময়না মিয়া পলাতক রয়েছে।  

পুলিশ ও ভুক্তভোগীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, ধর্ষণের শিকার ওই পোশাককর্মী শেরপুর জেলার শ্রীবরদী উপজেলার বালুগাঁও গ্রামের দরিদ্র কৃষক পরিবারের মেয়ে। শৈশব থেকেই তিনি জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলার নিলাক্ষিয়া ইউনিয়নের সাজিমারা গ্রামে নানাবাড়িতে থেকে বড় হয়েছেন। তিনি স্বামী পরিত্যক্তা। বছর দুয়েক আগে তিনি ঢাকায় একটি তৈরি পোশাক কারখানায় চাকরিতে যোগ দেন। গত বছর করোনাভাইরাসের কারণে তিনি চাকরি হারান। সম্প্রতি ঢাকার একটি তৈরি পোশাক কারখানায় নতুন করে চাকরিতে যোগদানের জন্য ইউনিয়ন পরিষদের জন্ম নিবন্ধনের প্রয়োজন হয় তার।

জন্ম নিবন্ধন সনদ তোলার জন্য ওই নারী নিলাক্ষিয়া ইউনিয়ন পরিষদের তথ্যসেবা কেন্দ্রের উদ্যোক্তা নাজমুল হাসান বাবুর সাথে যোগাযোগ করেন। নাজমুলের কথা অনুযায়ী গত ১৪ জানুয়ারি সন্ধ্যায় ইউনিয়ন পরিষদে যান ওই নারী। এ সময় স্থানীয় এক ব্যক্তির সহযোগিতায় তথ্যসেবা কেন্দ্রের ভেতরেই নাজমুল তাকে ধর্ষণ করেন। গতকাল সোমবার রাতে ধর্ষণের শিকার ওই পোশাককর্মী নারী তথ্যসেবা কেন্দ্রের উদ্যোক্তা নাজমুল ও তার সহযোগী ময়না মিয়াকে আসামি করে বকশীগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন।

ওই রাতেই অভিযান চালিয়ে নিলাক্ষিয়া বাজার এলাকা থেকে নাজমুলকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। নাজমুল নিলাক্ষিয়া পশ্চিমপাড়া গ্রামের আবুল কালামের ছেলে। মামলাটির অপর আসামি একই গ্রামের সুরুজ মিয়ার ছেলে ময়না মিয়া (২৬) পলাতক রয়েছেন। গ্রেপ্তার নাজমুলকে আজ মঙ্গলবার দুপুরে জামালপুর আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। একই দিনে জামালপুর সদর হাসপাতালে ডাক্তারি পরীক্ষাও সম্পন্ন হয়েছে ধর্ষণের শিকার ওই নারীর।

বকশীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শফিকুল ইসলাম কালের কণ্ঠকে বলেন, নিলাক্ষিয়া ইউনিয়ন পরিষদের তথ্যসেবা কেন্দ্রে ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেপ্তার নাজমুলকে আজ মঙ্গলবার দুপুরে জামালপুর আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। ধর্ষণের শিকার ওই নারীর ডাক্তারি পরীক্ষাও সম্পন্ন করা হয়েছে। মামলাটির অপর আসামি ময়না মিয়া পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা