kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭। ৪ মার্চ ২০২১। ১৯ রজব ১৪৪২

জেলার সব ওসিদের নিয়ে

নবীনগরে এই প্রথম 'মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভা' অনুষ্ঠিত

নবীনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি   

৬ জানুয়ারি, ২০২১ ০১:১০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নবীনগরে এই প্রথম 'মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভা' অনুষ্ঠিত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর থানা প্রাঙ্গণে এই প্রথমবারের মতো জেলার সব থানা ও সার্কেলের দায়িত্বপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তাদের নিয়ে 'মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভা' অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা শহরের বাইরে মঙ্গলবার দিনভর থানার ড্রিলশেডে অনুষ্ঠিত ওই ব্যতিক্রমী অপরাধ সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনিসুর রহমান। এতে জেলার নয়টি থানার নয়জন ওসি ও চারটি সার্কেলের সার্কেল অফিসারগণ (অতিরিক্ত ও সহকারী পুলিশ সুপার) সহ ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, জেলার সার্বিক আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ও বিট পুলিশিং কার্যক্রম নিয়ে করণীয় ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নির্ধারণের লক্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পুলিশের উদ্যোগে এই প্রথম জেলা শহরের বাইরে কোনো উপজেলা সদরে এ ধরনের ব্যতিক্রমধর্মী পুলিশি সভার আয়োজন করা হয়। এতে পুলিশ সুপার আনিসুর রহমানের আহবানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) মো. রহিছ উদ্দিন, সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রেজাউল করিম, নবীনগর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মকবুল হোসেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ডিএসবি'র সহকারি পুলিশ সুপার ও কসবা সার্কেলের দায়িত্বপ্রাপ্ত (অতিরিক্ত) পুলিশ কর্মকর্তা মো. আলাউদ্দিন ও সরাইল সার্কেলের সহকারি পুলিশ সুপার আনিছুর রহমান। 

এ সময় জেলার নয়টি থানার অফিসার ইনচার্জগণ (ওসি)সহ পুলিশের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন।

আইন-শৃংখলা ও বিট পুলিশিংয়ের ওপর দিনভর আলোচনা ও নানা অনুষ্ঠান শেষে বিকেলে স্থানীয় সাংবাদিকদের সঙ্গে পুলিশি তৎপরতা নিয়ে মতবিনিময় করেন পুলিশ সুপার।

এ সময় নবীনগরের সামগ্রিক আইন-শৃংখলার বিষয়টি পুলিশ সুপারের সামনে তুলে ধরেন সাংবাদিকরা।

নবীনগরের বহুল আলোচিত থানাকান্দির পা কাটা মোবারক ও লাউর ফতেপুরের জয়নাল হত্যাকারীরা প্রায় ছয় মাস পর এখনো কেন গ্রেপ্তার হচ্ছে না? কালের কণ্ঠের স্থানীয় প্রতিনিধি গৌরাঙ্গ দেবনাথ অপুর এমন প্রশ্নের জবাবে পুলিশ সুপার বলেন, আলোচিত দুটি হত্যাকাণ্ডের খুনিদের ধরতে পুলিশ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

এ সময় কালের কণ্ঠের পক্ষ থেকে নবীনগরের তীব্র যানজট নিরসনেও পুলিশ সুপারের সরাসরি হস্তক্ষেপ ও সহযোগিতা কামনা করা হয়।

পরে অনুষ্ঠানের সমন্বয়ক নবীনগর থানার ওসি আমিনূর রশীদ কালের কণ্ঠকে বলেন, 'আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ও বিট পুলিশিং নিয়ে জেলার সব থানার ওসিদের নিয়ে এ ধরনের মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভা নবীনগরে এটিই প্রথম। যা এখন থেকে পর্যায়ক্রমে জেলার সব থানা সদরে অনুষ্ঠিত হবে।

তিনি নবীনগরের আইন-শৃংখলার উন্নয়নে গণমাধ্যমকর্মীদের সহযোগিতা চান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা