kalerkantho

রবিবার। ২২ ফাল্গুন ১৪২৭। ৭ মার্চ ২০২১। ২২ রজব ১৪৪২

পাওনা টাকা চাওয়ায় মুদি দোকানির ওপর নৃশংসতা

পাকুন্দিয়া (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি    

১৭ ডিসেম্বর, ২০২০ ২৩:৩৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পাওনা টাকা চাওয়ায় মুদি দোকানির ওপর নৃশংসতা

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলার হাপানিয়া গ্রামের বিজয় নামের এক যুবকের কাছে পাওনা টাকা চাওয়ায় মুদি দোকানি শাকিলকে কুপিয়ে জখম করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। শাকিল উপজেলার বীরপাকুন্দিয়া গ্রামের মৃত শহিদুল্লাহর ছেলে। আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার নিশ্চিন্তপুর পাঁচতলা মার্কেটে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, উপজেলার হাপানিয়া গ্রামের মৃত বাদল মিয়ার ছেলে বিজয় একজন ভবঘুরে। প্রায় চার মাস আগে শাকিলের মুদি দোকান থেকে পাঁচশত পঞ্চাশ টাকার পণ্য নিয়েছিলেন বিজয়। চার মাস পেরিয়ে গেলেও বকেয়া টাকা পরিশোধ করছিলেন না তিনি। গত চারদিন আগে বিজয়ের কাছে পাওনা চান শাকিল। এর জের ধরে আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে বাড়ি থেকে একটি রামদা নিয়ে শাকিলের মাথা লক্ষ্য করে কুপ দেন। এ সময় শাকিল ডান হাত দিয়ে কোপটি ফেরান। পুনরায় কোপ দিলে শাকিল তার বাম হাত দিয়ে অপর কোপটিও ফেরান। এতে তার দুটি হাতই জখম হয়। এ সময় শাকিল তার মুদি দোকানেই বসা ছিলেন। তার ডাক-চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে বিজয় পালিয়ে যান।

প্রত্যক্ষদর্শী ছোটন বলেন, ‘আমি দৌড়ে গিয়ে বিজয়কে ফেরাতে গিয়েছিলাম। কিন্তু সে আমাকেও কোপাতে এগিয়ে আসে। পরে আমি সরে আসি।’ আহত শাকিল বলেন, ‘প্রায় চারমাস আগে বিজয় আমার দোকান থেকে বাকিতে পাঁচশত পঞ্চাশ টাকার বিভিন্ন পণ্য নিয়েছিল। অনেক বার চাইলেও বকেয়া টাকা দিচ্ছিল না। গত চারদিন আগে তাকে রাস্তায় পেয়ে আমি আমার পাওনা টাকা চেয়েছিলাম। এর জের ধরে আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আমার ওপর রামদা দিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় আমি দোকানে বসা ছিলাম। আমি এর বিচার চাই।’ 

বিষয়টি নিয়ে পাকুন্দিয়া বাজার বণিক সমিতির সভাপতি ওমর ফারুক মজলিশ বলেন, আমি দোকানে গিয়ে আহত শাকিলকে দেখে এসেছি। এ বিষয়ে কঠোর বিচার করা হবে। 

পাকুন্দিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সারোয়ার জাহান বলেন, এ বিষয়ে এখনও অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা