kalerkantho

শুক্রবার । ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১। ১৩ রজব ১৪৪২

কাজিপুরে গৌরবে আসীন বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার ভাস্কর্য

কাজিপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১১ ডিসেম্বর, ২০২০ ১৪:৪৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কাজিপুরে গৌরবে আসীন বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার ভাস্কর্য

ডাকবাংলোর সামনে স্থাপিত বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার ভাস্কর্য। ছবি: কালের কণ্ঠ

উত্তরবঙ্গের প্রবেশ দ্বার সিরাজগঞ্জের উত্তরের উপজেলা কাজিপুর। উত্তাল যমুনার ভাঙাগড়া নিত্য সঙ্গী বলে উপজেলা শহরটি তেমন জমজমাট নয়। তবে শেখ হাসিনা সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় সেখানে নির্মিত হয়েছে অত্যাধুনিক ডাকবাংলো, আইএইচটি, শেষ পর্যায়ে রয়েছে পরিবার পরিকল্পনা প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, টেক্সটাইল কলেজ, পল্লী বিদ্যুৎ অফিসসহ আরও অনেক স্থাপনা। সব মিলে কাজিপুর এখন অনেকখানি এগিয়ে। তবে এতো কিছুর মধ্যেও নজর কাড়ার মতো কিছু স্থাপনা গড়ে উঠেছে। এসব স্থাপনার মধ্যে অন্যতম স্বাধীনতা স্কয়ার। উপজেলা ডাকবাংলোর সামনে স্থাপন করা এই স্বাধীনতা স্কয়ারটিতে মাথা উঁচু করে গৌরবে আসীন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও জাতীয় চার নেতার ভাস্কর্য।

বৃহস্পতিবার (১০ ডিসেম্বর) সরেজমিনে গেলে সেখানে ভাস্কর্য ছাড়াও নজর কাড়ে আবহমান বাংলার ঐতিহ্য ও স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাসের খোদাই করা চিত্র। ৫তলা ভবন বিশিষ্ট ডাকবাংলোটির সামনের চত্বরেই স্থাপন করা হয়েছে স্বাধীনতা স্কয়ার। এর চারপাশের বাউন্ডারির দেয়ালে টেরাকোটায় খোদাই করা হয়েছে আবহমান বাংলার চিত্র, ভাষা আন্দোলন, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ।

দ্বি-স্তর বিশিষ্ট চিত্রকর্মের উপরের স্তরে স্থাপন করা হয়েছে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিশাল আকৃতির ভাস্কর্য। তার নিচে রয়েছে জাতীয় চার নেতা শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম, শহীদ তাজ উদ্দিন আহম্মেদ, শহীদ এম মনসুর আলী ও শহীদ এইচএম কামারুজ্জামানের ভাস্কর্য। প্রতিটি ভাস্কর্যের গায়ে খোদাই করে লেখা হয়েছে বর্ণাঢ্য জীবনীর সারসংক্ষেপ।

জেলা পরিষদের অর্থায়নে নির্মিত ৫তলা ভবন বিশিষ্ট ডাকবাংলোর সামনে উপজেলা পরিষদের জায়গার উপর নির্মিত স্বাধীনতা স্কয়ারটি ২০১৮ সালের ডিসেম্বর মাসে তৎকালীন স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্রয়াত মোহাম্মদ নাসিম নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন। তাঁর ব্যক্তিগত অর্থায়নে প্রায় ৭০ লাখ টাকা ব্যয়ে এটি নির্মাণ কাজ শুরু হয়। পরবর্তীতে ২০১৯ সালে এটির সীমানা প্রাচীরে আবহমান বাংলা, ৫২ থেকে ৭১ এর ঐতিহাসিক চিত্র এবং বর্তমান ডিজিটাল বাংলাদেশের চিত্র সম্বলিত বিভিন্ন শিল্পকর্ম স্থাপনের কাজ শুরু হয়।

কাজিপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব শওকত হোসেন জানান, 'জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও জাতীয় চার নেতার স্মৃতির প্রতি সম্মান জানাতে আমাদের প্রয়াত নেতা মোহাম্মদ নাসিম এই ভাস্কর্য নির্মাণ করেন।’

উপজেলা চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান জানান, ‘এই স্বাধীনতা স্কয়ারটির সৌন্দর্য বর্ধনের আরো কিছু কাজ বাকি আছে। খুব শিগগিরই এটি সম্পন্ন হবে। আমরা প্রতিটি জাতীয় দিবসে জাতির পিতাকে শ্রদ্ধা জানাতে এই ভাস্কর্যে পুস্পস্তবক অর্পণ করি। এছাড়াও প্রতিদিন অনেক লোকজন এ ভাস্কর্য দেখার জন্য এখানে আসে।'

কাজিপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহিদ হাসান সিদ্দিকী বলেন, ‘উপজেলা পরিষদের জায়গাতেই প্রয়াত সাবেক মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের অর্থায়নে এই ভাস্কর্য নির্মাণ করা হয়েছে। এখানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছাড়াও জাতীয় চার নেতার ভাস্কর্য রয়েছে। এছাড়াও ৫২ এর ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে মুক্তিযুদ্ধ এবং বর্তমান ডিজিটাল বাংলাদেশ-এসব বিষয় এখানে প্রতিফলিত হয়েছে। এগুলোর নিরাপত্তায় আমরা এরইমধ্যে সিসি ক্যামেরার আওতায় নিয়ে এসেছি। আইন শৃংখলা বাহিনীর সাথে কথা হয়েছে। কোন অশুভ শক্তি যাতে ভাস্কর্যের ক্ষতি করতে না পারে সে বিষয়ে আমরা সচেতন রয়েছি।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা