kalerkantho

মঙ্গলবার। ৫ মাঘ ১৪২৭। ১৯ জানুয়ারি ২০২১। ৫ জমাদিউস সানি ১৪৪২

নিজে মাস্ক পরেননি অথচ একই অপরাধে রোগীর স্বজনকে গলাধাক্কা!

মদন (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি    

৫ ডিসেম্বর, ২০২০ ১৯:২০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নিজে মাস্ক পরেননি অথচ একই অপরাধে রোগীর স্বজনকে গলাধাক্কা!

করোনা মহামারীতে সরকারের স্বাস্থ্যবিধি না মেনে মদন হাসপাতালের মেডিক্যাল অফিসার ডাক্তার কাজী বুশরা আমীন জরুরি বিভাগে রোগী দেখছেন। তিনি মাস্ক না পরেই রোগীদের সেবা দিচ্ছেন। এদিকে রোগী ও রোগীর স্বজনরা মাস্ক না পরে সেবা নিতে আসা রোগীদের সঙ্গে এই অপরাধে অসধাচারণ করছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। কিছু দিন আগে ডাক্তার বুশরা আমীন নিজেই করোনা প্রজিটিভ ছিলেন। 

শনিবার বিকেলে জরুরি বিভাগে সেবা নিতে আসা রোগীর স্বজন আয়েশা আক্তার নামে একজনকে মাস্ক ব্যবহার না করার জন্য ধাক্কা দিয়ে হাসপাতাল থেকে বের করে দেন। তবে হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়, ডাক্তার কাজী বুশরা আমীন নিজে মাস্ক না পরে হাসপাতালের  জরুরি বিভাগের বাইরে রোগীর স্বজনদের সাথে বাগবিতণ্ডা করছেন। পরপরই আবার মাস্ক না পরে রোগী দেখছেন।

রোগীর স্বজন আয়েশা আক্তার বলেন, আমি মাস্ক না পরে জরুরি বিভাগে গেলে তিনি আমাকে বের হয়ে যেতে বলেন। 'আপনি তো নিজেই মাস্ক পড়েননি' এ কথা বললে আমাকে ধাক্কা দিয়ে বের করে দেন। 

রোগী হান্নান মিয়া বলেন, আমাদের সামনেই ওই ডাক্তার আয়েশা আক্তারকে ধাক্কা দিয়ে বের করে দেন। তিনি আমাদের সাথেও খারাপ ব্যবহার করেন। 

ডাক্তার বুশরা আমিন বলেন, বিষয়টি নিয়ে আমি আর কথা বলতে চাই না। রোগীর নিকট থেকে জেনে নেন। রোগীর স্বজনদের ধাক্কা দিয়ে বের করে দেওয়া বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি বাহিরে যাওয়ার সময় হয়তো ধাক্কা লাগতে পারে।  

হাসপাতালের আরএমও সাইম হাসান রিয়াদ জানান, ডাক্তার কাজী বুশরা আমীন মাস্ক না পরে রোগী দেখে থাকলে এটা তার ভুল হয়েছে। ধাক্কার বিষয়ে অভিযোগ পেলে সিসি টিভি ফুটেজ দেখে স্বাস্থ প্রশাসকের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার মোহাম্মদ হাসানুল বলেন, বিষয়টি আরএমও এর মাধ্যমে জেনেছি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা