kalerkantho

বুধবার । ১৩ মাঘ ১৪২৭। ২৭ জানুয়ারি ২০২১। ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন ‘আল্লাহর দল’র সক্রিয় সদস্য গ্রেপ্তার

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ   

৩ ডিসেম্বর, ২০২০ ২১:৩৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন ‘আল্লাহর দল’র সক্রিয় সদস্য গ্রেপ্তার

নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আল্লার দলের এক সক্রিয় সদস্যকে গোপন সংবাদের ভিক্তিতে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১৪। তার নাম হুমায়ুন কবির ইমন (২০)। ইমন ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার রাজগাতি ইউনিয়নের পূর্বদরিল্লা গ্রামের মৃত দোলোয়ার হোসেন হাদীস মিয়ার ছেলে। 

বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে আটটায় কিশোরগঞ্জের সাদুল্লাচন এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে বৃহস্পতিবার মামলা দিয়ে তাকে কোতোয়ালি থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। র‌্যাব-১৪-এর উপ-পরিচালক কম্পানি কমান্ডার লে. কমান্ডার বিএন এম শোভন খান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

র‌্যাব-১৪ জানায়, তাদের সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জের একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, মো. হুমায়ূন কবির ইমন (২৩) ময়মনসিংহসহ নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন ‘আল্লাহর দল’র তিন থেকে চারজন সক্রিয় সদস্য কিশোরগঞ্জ জেলার সদর থানাধীন সাদুল্লাহর চর বাজার এলাকায় দাওয়াতি কার্যক্রম ও নাশকতা সৃষ্টির উদ্দেশ্যে সংগোপনে অবস্থান করছে। আভিযানিক দল গত বুধবার রাত সাড়ে আটটায় কিশোরগঞ্জ জেলার সদর থানাধীন সাদুল্লাহর চর বাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ইমনকে আটক করতে সক্ষম হয়। তার কাছ থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন ‘আল্লাহর দল’র বিপুল পরিমাণ উগ্রবাদী লিফলেট, এ সংক্রান্ত কাগজপত্র এবং সিমসহ ১টি মোবাইল সেট উদ্ধার করা হয়। এ সময় ‘আল্লাহর দল’র তিন থেকে চারজন সক্রিয় সদস্য সুকৌশলে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

গ্রেপ্তার ইমন প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানায়, ময়মনসিংহে ২০১১ সালে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন ‘আল্লাহর দল’র সদস্য হিসেবে শপথ গ্রহণ করে। তখন থেকেই কিশোরগঞ্জ এলাকায় উক্ত সংগঠনের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের সঙ্গে সম্পৃক্ত। জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানায়, নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন ‘আল্লাহর দল’র প্রধান সংগঠক আব্দুল মতিন মেহেদী মতিনুল ইসলামের চিন্তা-ভাবনা ও মতাদর্শ দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়ে সংগঠনের সমর্থক এবং সক্রিয় সদস্য হয়ে উঠে। 

জানা যায়, তার সহযোগী অন্যান্যদের ব্যাপারে অনুসন্ধান পূর্বক গ্রেপ্তারের কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। এ বিষয়ে গ্রেপ্তার ইমনের বিরুদ্ধে কিশোরগঞ্জ জেলার সদর থানায় মামলা দায়ের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা