kalerkantho

রবিবার। ৩ মাঘ ১৪২৭। ১৭ জানুয়ারি ২০২১। ৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

রাতে কম্বল নিয়ে গরিবের ঘরে ইউএনও

ডামুড্যা (শরীয়তপুর) প্রতিনিধি   

২ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৫:১৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাতে কম্বল নিয়ে গরিবের ঘরে ইউএনও

ঘড়ির কাটা রাত তখন সাড়ে ১১টা! শীতার্ত এক বৃদ্ধা নারী এই শীতে পাতলা একটি কাঁথা জড়িয়ে রাস্তার পাশে ঝুপড়ি ঘরে শুয়ে আছে। তাকে একটি কম্বল দিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মর্তুজা আল মুঈদ। এই রকম ৭০ থেকে ৮০ জন বৃদ্ধা পুরুষ ও নারীর ঘরে গিয়ে কম্বল দিয়েছেন তিনি। রাতে শীতের একখানা কম্বল পেয়ে অসহায় মানুষ বেশ খুশি।

মঙ্গলবার দিবাগত রাতে উপজেলার বিভিন্ন পয়েন্ট ঘুরে দুষ্ট, অসহায়, এতিম, বৃদ্ধা নারী পুরুষের মাঝে সরকারি কম্বল প্রদান করেন।

উপজেলা কালের কণ্ঠ অফিসের পাশে ঝুপড়িতে শুয়ে থাকা শুকতারা বেগম (৫৫) বলেন, শীতে অনেক ঠান্ডা লাগে। পাতলা একটা কাঁথা গায়ে জড়িয়ে শুয়ে থাকি। কম্বলটা আমার বেঁচে থাকার অনেক উপকার হবে।

পঞ্চাশোর্ধ হানিফ কলু বলেন, শীতে আমার খুব কষ্ট হচ্ছিল। করোনায় কাজ কাম নাই হাতে টাহা পয়সাও নাই। কেমনে কিনুম গরম কাপড়। এই বড় সাহেব আমাকে একটা কম্বল দিলেন। এখন রাতে একটু ভালোভাবে ঘুমাতে পারব।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মর্তুজা আল মুইদ বলেন, ‘শীত পড়তে শুরু করেছে। এখন ছিন্নমূল ও অসহায় যারা আছে তাদের শীত নিবারণের জন্য রাতে ঘুরে ঘুরে তাদের কম্বল বিতরণ করা হবে। আগামীতেও এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা