kalerkantho

মঙ্গলবার। ৫ মাঘ ১৪২৭। ১৯ জানুয়ারি ২০২১। ৫ জমাদিউস সানি ১৪৪২

হুমকির মুখে সেতু, রক্ষার দাবিতে মানববন্ধন

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি   

২৯ নভেম্বর, ২০২০ ১৪:৩৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হুমকির মুখে সেতু, রক্ষার দাবিতে মানববন্ধন

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে নদী ভাঙন থেকে ঘরবাড়ি, মসজিদ ও বংশাই নদীর ওপর নির্মিত ব্রিজ রক্ষার দাবিতে মির্জাপুর-পাথরঘাটা আঞ্চলিক সড়ক অবরোধ করে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। রবিবার সকাল ১১টায় উপজেলা সদরের বংশাই ব্রিজে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে এলাকার শত শত নারী-পুরুষ অংশ নেন। এ সময় মির্জাপুর-পাথরঘাটা আঞ্চলিক সড়কে প্রায় এক ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে।

মির্জাপুর উপজেলা সদরের পূর্ব পুষ্টকামুরী সওদাগর পাড়া ও বাওয়ার কুমার মৌজায় বংশাই নদী এলাকায় শতাধিক সওদাগর সম্প্রদায়সহ প্রায় পাঁচশতাধিক পরিবার বসবাস করে। এ ছাড়া মির্জাপুর উপজেলার পাহাড়ি অঞ্চলের মানুষের সাথে উপজেলা সদরের যোগাযোগ রক্ষার্থে বর্তমান সরকার কয়েক বছর পূর্বে পুষ্টকামুরী সওদাগর পাড়াসংলগ্ন বংশাই নদীর ওপর প্রায় ২০ কোটি টাকা ব্যয়ে ৩ শ মিটার দৈর্ঘ ব্রিজ নির্মণ করে। বর্ষা এলেই ওই এলাকায় প্রতিবছর ভাঙন শুরু হয়। গত কয়েক বছরে বিপুলসংখ্যক ঘরবাড়ি নদীগর্ভে চলে গেছে। এ বছর দীর্ঘস্থায়ী বন্যার পানির স্রোতে সওদাগর পাড়া এলাকায় ব্যাপক ভাঙনে একটি মসজিদসহ বিপুলসংখ্যক ঘরবাড়ি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। এ ছাড়া অসময়ে ব্যাপক ভাঙনের ফলে বংশাই ব্রিজটিও হুমকির মুখে পড়েছে।

এর মধ্যে নদীর ভাঙনে ব্রিজটির দক্ষিণ পাশের পিলারের মাটির অংশ সরে নদীগর্ভে চলে গেছে। নদী ভাঙন থেকে ঘরবাড়ি ও ব্রিজ রক্ষার্থে বাঁধ নির্মাণের দাবিতে এলাকাবাসী রবিবার সকাল ১১টায় বংশাই ব্রিজের ওপর এবং নদীর কিনারায় মানববন্ধন ও সমাবেশ করে।

এলাকাবাসী অভিযোগ করে বলেন, প্রতিবছর একটি চক্র পানি উন্নয়ন বোর্ড ও স্থানীয় প্রশাসনকে ম্যানেজ করে শুকনো মৌসুমে এসকাভেটর দিয়ে নদীর পারে মাটি কাটে এবং বর্ষায় ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালি তোলে। ফলে প্রতিবছর নদী ভাঙনের কবলে পড়ে তীরবর্তী মানুষ। ফলে ক্ষতিগ্রস্ত লোকজন আশ্রয় হারিয়ে অন্যের বাড়িতে আশ্রয় খুঁজছে। নির্বাচন আসলে সবাই গিয়ে তাদের পাশে দাঁড়ায় এবং নদী ভাঙনের কবল থেকে রক্ষার জন্য সবকিছু করার প্রতিশ্রুতী দেয়। নির্বাচন শেষ হলে তাদের খোঁজ আর কেউ রাখে না বলে তারা অভিযোগ করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা