kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ মাঘ ১৪২৭। ২৬ জানুয়ারি ২০২১। ১২ জমাদিউস সানি ১৪৪২

'সরকার আমাগো বাড়িতে চেক দিয়া যাইবে কল্পনাও করি নাই!'

শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি   

২৭ নভেম্বর, ২০২০ ১৫:৫৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



'সরকার আমাগো বাড়িতে চেক দিয়া যাইবে কল্পনাও করি নাই!'

সরকার আমাগো বাড়িতে চেক দিয়া যাইবে কোনো দিন কল্পনাও করি নাই! আগে চেক পাইতে দালাল ধরা লাগছে। অনেক ভোগান্তি পোহাইতে ওইছে আমাগো। ভুল বুঝাইয়া বহুত মানুষের টাহা (টাকা) খাইছে দালালে। এবার ডিসি স্যার নিজে আইস্যা আমাগো হাতে কেচ দিছে। আমি খুব খুশি।

বেড়ি বাঁধ নির্মাণের জন্য অধিগ্রহণকৃত জমির মধ্যে থাকা ঘরবাড়ি ও গাছপালার ক্ষতিপূরণের চেক হাতে পেয়ে এমন অভিব্যক্তি প্রকাশ করেন বাগেরহাটের শরণখোলার সাউথখালী ইউনিয়নের দক্ষিণ সাউথখালী গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আ. বারেক হাওলাদার (৭০)। তিনি দুটি বসতঘরে ১২ লাখ এবং গাছপালার আড়াই লাখসহ মোট সাড়ে ১৪ লাখ টাকার চেক হাতে পেয়েছেন।

হায়দার মৃধা (৪৫) পেয়েছেন দুই লাখ ৯৩ হাজার ৩৮৯ টাকা, ফাহিমা বেগম পেয়েছেন ৪৭ হাজার ৫০০ টাকার চেক। কোনো ধরনের হয়রানি ছাড়া চেক হাতে পেয়ে তারা সবাই উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন।

শুক্রবার সকাল ১১টায় বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ বগী ও দক্ষিণ সাউথখালী গ্রামের ৬৬ জন ক্ষতিগ্রস্তকে এক কোটি ৩৩ লাখ ৩৯ হাজার ৭৭৫ টাকার ক্ষতিপূরণের চেক প্রত্যেকের বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেন। পরবর্তী সময়ে জমি অধিগ্রহণের ছয় কোটি ৭৯ লাখ ২৪ হাজার টাকার চেকও ক্ষতিগ্রস্তদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে দেওয়া হবে বলে জেলা প্রশাসন সূত্র জানিয়েছে।

জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ইশতেহার দুর্নীতির বিরুদ্ধে ‘শূন্য সহিষ্ণুতা নীতি’ বাস্তবায়ন। সেই লক্ষ্যে জেলার উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য অধিগ্রহণকৃত জমির ক্ষতিপূরণের টাকা বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রকৃত মালিকের হাতে পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। যাতে কেউ মধ্যস্বত্বভোগীর খপ্পরে পড়ে ন্যায্য পাওনা থেকে বঞ্চিত না হয়। 

জেলা প্রশাসক বলেন, শরণখোলায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের ৩৫/১ পোল্ডারের বগী-দক্ষিণ সাউথখালী গ্রামের প্রায় দুই কিলোমিটার এলাকা অধিক ঝুঁকিপূর্ণ এবং ভাঙনকবলিত। এখানকার নদী শাসনের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। বর্তমানে সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে এখানে অস্থায়ী বাঁধ নির্মাণ করা হয়েছে। স্থায়ী বাঁধ নির্মাণের জন্য অধিগ্রহণ করা হয়েছে দুই গ্রামের প্রায় ১৭ একর জমি। বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের ‘উপকূলীয় বাঁধ উন্নয়ন' প্রকল্পের (সিইআইপি) মাধ্যমে শিগগিরই টেকসই বাঁধের কাজ শুরু হবে।

চেক হস্তান্তরকালে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. শাহীনুজ্জামান, শরণখোলা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রায়হান উদ্দিন শান্ত, ইউএনও সরদার মোস্তফা শাহিন, জেলা ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা মমতাজ বেগম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান হাসানুজ্জাান পারভেজ, সাউথাখলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেন প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা