kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৭ মাঘ ১৪২৭। ২১ জানুয়ারি ২০২১। ৭ জমাদিউস সানি ১৪৪২

বাড়ছে শীত, বাড়ছে পুরনো কাপড়ের দোকানে ভিড়

মো. লালন উদ্দীন, বাঘা (রাজশাহী)   

২৬ নভেম্বর, ২০২০ ১৬:৪৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাড়ছে শীত, বাড়ছে পুরনো কাপড়ের দোকানে ভিড়

শুরু হয়েছে কনকনে ঠাণ্ডা। সন্ধ্যা নামার সাথে সাথেই হিমেল হাওয়ার সঙ্গে শীত শুরু হয়। নতুন কাপড়ের দোকানে মধ্যবিত্ত আর উচ্চবিত্তদের ভিড় থাকলেও নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য তা কেনা বেশ কষ্টসাধ্য। তাই তাদের একমাত্র ভরসা পুরনো কাপড়ের দোকান।

৩০ টাকা থেকে শুরু করে ৫০০ টাকা দরের কাপড়ও ওসব দোকানে পাওয়া যাচ্ছে। নতুন কাপড়ের দোকানের পাশাপাশি পুরনো কাপড়ের দোকানগুলোতে প্রচুর ভিড়। রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী ও বাঘা তেঁতুলতলা হাটে পুরনো কাপড়ের দোকানে ক্রেতাদের আগ্রহ যেন একটু বেশি। এর মূল কারণই হলো এখানকার কাপড়ের দাম কম। এ কারণেই নিম্ন ও মধ্য আয়ের ক্রেতাদের ভিড় বেশি। ১৫ থেকে ২০ জন ব্যবসায়ী এখানে কাপড় বিক্রি করেন।

ঊনিয়াপাড়া এলাকার নিম্ন আয়ের ক্রেতা ইয়ার আলী জানান, আমরা দিন আনে দিন খায় এমন মানুষের সংখ্যায় বেশি। আমাদের মতো গরিব মানুষ শীতে গরম কাপড় কিনতে পারে না। তাই ছেলে-মেয়েদের নিয়ে অনেক কষ্টে দিন যাপন করতে হয়। তাই ফুটপাতের দোকানে বাচ্চাদের জন্য কিছু গরম কাপড় কিনছি।

আড়ানী হাটে পুরনো কাপড় বিক্রেতা জয়নাল আবেদিন জানান, ঢাকা ও চট্টগ্রাম থেকে এ বছর কয়েক লট মাল আনা হয়েছে। ভালো বিক্রিও হয়েছে। ক্রেতারা প্রচুর আসছে। কোনো কোনো লটে অনেক ভালো কাপড় থাকে। সেই ভালো কাপড় খুঁজে নিতে ক্রেতাদের থাকে বাড়তি আগ্রহ।

বাঘা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা বলেন, উপজেলায় এখনো পুরোপুরি শীত শুরু হয়নি। তবে দেখেছি উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজারে পুরনো কাপড়ের হাট বসছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা