kalerkantho

মঙ্গলবার। ৫ মাঘ ১৪২৭। ১৯ জানুয়ারি ২০২১। ৫ জমাদিউস সানি ১৪৪২

তুচ্ছ ঘটনায় দুই গ্রামের সংঘর্ষ, আহত যুবকের মৃত্যু

হাওরাঞ্চল প্রতিনিধি   

২৪ নভেম্বর, ২০২০ ১৬:১৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তুচ্ছ ঘটনায় দুই গ্রামের সংঘর্ষ, আহত যুবকের মৃত্যু

নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই দল গ্রামবাসীর মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনার প্রায় ২৪ ঘণ্টা পর আহত কামরুল ইসলাম (৩৫) নামে এক যুবকের চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে। সোমবার সকাল নয়টার দিকে প্রতিপক্ষের লোকজনের হামলায় আহত হওয়ার পর আজ মঙ্গলবার সকাল নয়টার দিকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় কামরুল ইসলাম মারা যান।

নিহত কামরুল ইসলাম উপজেলার মাঘান-সিয়াধার ইউনিয়নের সিয়াধার গ্রামের মৃত নিজাম উদ্দিনের ছেলে। সোমবার সকালে উপজেলার মাঘান-সিয়াধার ইউনিয়নের সিয়াধার গ্রামের শাহ্জাহান মিয়ার পক্ষের লোকজনের সাথে একই ইউনিয়নের রামপাশা গ্রামের শফিকুল ইসলামের লোকজনের এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, সোমবার সকালে বাইসাইকেল নিয়ে রামপাশা গ্রামের সঙ্গে সিয়াধার গ্রামের সংঘর্ষ বাধে। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে ১০ জন গুরুত্বর আহত হন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওইদিনই কামরুল ইসলাম (৩৫), হীরা মিয়া (২০) ও শাহীন আলম (২২) নামে তিনজনকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার সকালে শাহ্জাহান মিয়ার পক্ষের লোক কামরুল ইসলাম মারা যান।

মোহনগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল আহাদ খান বলেন, এ ব্যাপারে নিহত কামরুল ইসলামের মামা মো. রুকন উদ্দিন বাদি হয়ে প্রতিপক্ষের ৪১ জনকে আসামি করে মঙ্গলবার দুপুরে মোহনগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে নেওয়া হয়েছে। আসামিদেরকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা