kalerkantho

রবিবার । ১০ মাঘ ১৪২৭। ২৪ জানুয়ারি ২০২১। ১০ জমাদিউস সানি ১৪৪২

তিন অপমৃত্যু

সিরাজগঞ্জ, রাউজান ও কমলাকান্দা প্রতিনিধি   

২৩ নভেম্বর, ২০২০ ১৬:৪৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



তিন অপমৃত্যু

রাউজানের ডাবুয়ায় গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার
রাউজানের ডাবুয়া ইউনিয়নে এক গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ২৩ নভেম্বর সোমবার দুপুর দেড়টার দিকে ওই নারীর মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেন পুলিশের একটি দল। নিহত ওই গৃহবধূর নাম পিংকী মহাজন (৩২)। তিনি উপজেলার ডাবুয়া রামনাথপাড়া এলাকার ওমানপ্রবাসী বিশু মহাজনের স্ত্রী। এই দম্পতির দুই ছেলে রয়েছে।

ইউপি সদস্য শীতল শীল বলেন, পাড়ার লোকজন আমাকে সকালে বিষয়টি জানায়। আমি পুলিশকে জানাই। পুলিশ দুপুর দেড়টার দিকে লাশ উদ্ধার করে। ঘটনাটি আত্মহত্যা নাকি অন্য কিছু তা এখনও বলা যাচ্ছে না। 

ঘটনাস্থল পরিদর্শনকারী এসআই মিজান বলেন, ওই নারীর লাশ সুরতহাল করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শাহজাদপুরে গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার
সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে আঁখি খাতুন (২০) নামের এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার দুপুরে ময়নাতদন্তের জন্য উদ্ধার হওয়া মরদেহটি সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যার বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। রবিবার রাতে শাহাজাদপুর উপজেলার পোতাজিয়া রায়পাড়া থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। আঁখি ওই রায়পাড়ার মামুন শেখের স্ত্রী ও পাবনার সাথিয়া উপজেলার সোনাতলা গ্রামের আশরাফুল ইসলামের মেয়ে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, প্রায় তিন বছর আগে মামুন শেখের আঁখি খাতুনের বিয়ে হয়। তাদের ঘরে একটি কন্যা (২) সন্তান রয়েছে। কিন্তু বেশ কিছুদিন ধরে উভয়ের মধ্যে পারিবারিক কলহ চলছিল। এ অবস্থায় রবিবার রাতে আঁখির ঝুলন্ত মরদেহে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়।

শাহজাদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহীদ মাহমুদ জানান, খবর পেয়ে রবিবার রাতেই ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সোমবার দুপুরে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। 

কলমাকান্দায় প্রতিপক্ষের হামলায় আহত বৃদ্ধর মৃত্যু
নেত্রকোনার কলমাকান্দায় প্রতিপক্ষের হামলায় আহত বৃদ্ধ আব্দুল হেকিম (৮৫) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। রবিবার রাতে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তিনি মারা যায়। ওই দিন দুপুরে উপজেলার খারনৈ ইউনিয়নের বটতলা উত্তরপাড়া গ্রামে এ হামলার ঘটনাটি ঘটে। পরে ওই ঘটনায় নিহত আব্দুল হেকিমের ছেলে মো. শরাফত আলী বাদী হয়ে কলমাকান্দা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, উপজেলার খারনৈ ইউনিয়নের কচুগড়া গ্রামের মো. শরাফত আলী ও বটতলা গ্রামের মো. আজমান খানের মধ্যে জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। গত রবিবার দুপুরে আজমানের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী শরাফত আলীর রুপনকৃত জমির ধান কেটে নেওয়ার চেষ্টা চালায়। এ সময় শরাফত ও তার পরিবারের লোকজন বাধা দিতে গেলে আজমানের লোকজন তাদের ওপর ধারালো অস্ত্র ও লাঠি নিয়ে হামলা চালিয়ে আব্দুল হেকিমকে কুপিয়ে জখম করে। পরে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় আহত আব্দুল কেকিমকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। পরে ওই দিন রাতেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় আব্দুল হেকিম মারা যান।  

কলমাকান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ টি এম মাহমুদুল হক বলেন, এ ঘটনায় নিহতের ছেলে বাদী হয়ে কলমাকান্দা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।    

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা