kalerkantho

সোমবার । ১১ মাঘ ১৪২৭। ২৫ জানুয়ারি ২০২১। ১১ জমাদিউস সানি ১৪৪২

চৌগাছায় আগাম পৌর নির্বাচনের হাওয়া

সামাজিক অনুষ্ঠান ও ফেসবুকে সম্ভাব্য প্রার্থীদের কৌশলে প্রচার

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি   

২৩ নভেম্বর, ২০২০ ১২:০৯ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



চৌগাছায় আগাম পৌর নির্বাচনের হাওয়া

আসন্ন চৌগাছা পৌরসভা নির্বাচনের সম্ভাব্য প্রার্থীরা। ছবি: কালের কণ্ঠ

সারাদেশে পৌরসভার নির্বাচনের তারিখ এখনো ঠিক হয়নি। তবে ২০২১ সালের মধ্যেই কয়েকটি ধাপে পৌর নির্বাচন সম্পন্ন হবে বলে নির্বাচন অফিস জানিয়েছে। এদিকে পৌর নির্বাচনকে ঘিরে আগাম প্রচারণা শুরু হয়েছে চৌগাছা পৌরসভা এলাকায়। সম্ভাব্য প্রার্থীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে দোয়া আর্শিবাদ কামনা করছেন। পৌর এলাকার সামাজিক নানা ছোটখাট অনুষ্ঠানে যোগদান করে স্থানীয়দের কাছে প্রার্থী হিসাবে নিজেকে তুলে ধরছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা। চাচ্ছেন দোয়া, দিচ্ছেন প্রতিশ্রুতি। নির্বাচন উপলক্ষে কেন্দ্রের দলীয় ফোরামে দেনদরবারও চালাচ্ছেন অনেকে।

পৌরসভা নির্বাচন উপলক্ষে আগামভাবে যারা প্রার্থীতা ঘোষনা করে বিভিন্ন প্রচারণা চালাচ্ছেন তারা হলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের নির্বাহী কমিটির সদস্য ও পৌরসভার বর্তমান মেয়র নূর উদ্দিন আল-মামুন হিমেল, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এস, এম সাইফুর রহমান বাবুল, কেন্দ্রীয় আওয়ামী যুবলীগের সদস্য অমিত কুমার বসু ও উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মোঃ জসিম উদ্দিন, পৌর বিএনপির আহবায়ক ও সাবেক মেয়র সেলিম রেজা আওলিয়ার, পৌর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক সোহরাব হোসেন ও আব্দুল হালিম চঞ্চল। এছাড়া জামায়াত সমর্থিত প্রার্থী হিসেবে চৌগাছা মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কামাল আহমেদের নাম শোনা যাচ্ছে।

আগামী পৌরসভা নির্বাচন উপলক্ষে চৌগাছা পৌরসভার সম্ভাব্য প্রার্থীরা আগাম ভাবেই তাদের প্রচারণা চালাতে শুরু করেছেন। প্রচারণার মাধ্যম হিসাবে তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুককে ব্যবহার করছেন। নিজের ফেসবুক আইডিসহ প্রার্থীর সমার্থক গোষ্টি পেইজ খুলে বিভিন্নভাবে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। এছাড়া সামাজিক ছোটখাট অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে নিজেদের প্রার্থী হিসাবে ভোটারদের কাছে তুলে ধরছেন। জনগনের কোনো সমস্যা থাকলে বা এলাকার কোনো সমস্যা জানতে পারলে প্রার্থীরা আগেভাগে উপস্থিত হয়ে সেই সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিচ্ছেন। পৌর এলাকায় দলমত নির্বিশেষে কারো মৃত্যু হলে নামাজে জানাজা, দাফন, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল এবং কবর জিয়ারতে অংশ গ্রহন করে মরহুমের পরিবারকে সমবেদনা জানাচ্ছেন।

পৌর এলাকার বিভিন্ন মহল্লায়ও সম্ভাব্য প্রার্থীদের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে। প্রার্থীরা কৌশলে দোয়া চাচ্ছেন, দিচ্ছেন প্রতিশ্রুতি। আগাম নির্বাচনকে ঘিরে প্রার্থীরা মনোনয়ন পেতে দৌড়ঝাপের মাধ্যমে কেন্দ্রীয় নেতাদের দরজায় বারবার ধর্ণা দিচ্ছেন বলে একাধিক সূত্র জানিয়েছে। করোনাকালীন সমস্যার কারনে প্রার্থীরা বিমানযোগে ঢাকায় যাওয়া আসা করছেন বলেও সূত্রগুলো নিশ্চিত করেছে। সকল প্রার্থীই দলীয় মনোনয়ন পেতে আশাবাদী।

আসন্ন নির্বাচন নিয়ে বর্তমান মেয়র নূর উদ্দিন আল মামুন হিমেল জানান, আমি দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত আছি। বিগত নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পেয়ে নির্বাচিত হয়েছি। এবারো মনোনয়ন চাইব। তবে দলের সিদ্ধান্তের বাইরে তিনি যাবেন না বলে জানান।

উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান বাবুল বলেন, আমি ছাত্র জীবন থেকে রাজনীতির মাঠে আছি। বিগত নির্বাচন স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচন করে সামন্য ভোটে পরাজিত হয়েছি। পৌর নির্বাচনে দল যদি মনোনয়ন দেয় তবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করব।

কেন্দ্রীয় আওয়ামী যুবলীগের সদস্য অমিত কুমার বসু জানান, ছাত্রজীবন থেকে রাজনীতির শৃংখলা ও শিষ্টাচার মেনে রাজনীতি করেছি। পৌর নির্বাচনে মনোনয়ন পাবার চেষ্টা করছি। তবে দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে তিনি যাবেন না।

উপজেলা আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মোঃ জসিম উদ্দিন জানান, পৌর নির্বাচনে মনোনয়ন পাবার চেষ্টা করছি। দল মনোনয়ন না দিলে নির্বাচনে তিনি যাবেন না বলে জানান।

পৌর বিএনপির আহবায়ক ও সাবেক মেয়র সেলিম রেজা আওলিয়ার বলেন, দীর্ঘদিন পৌর মেয়র হিসাবে ছিলাম। এখনো দলের সাথে আছি তবে নির্বাচন নিয়ে আপাতত আমার কোন মতামত নেই। সেটা সময় বলে দেবে।

পৌর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক সোহরাব হোসেন জানান, ছাত্রজীবন থেকে আমি রাজনীতি করছি। দলের সাথে কখনো বেইমানি করিনি। পৌর নির্বাচনে আমি মনোনয়ন চাইব। দল মনোনীত করলে তবে নির্বাচনে অংশ গ্রহন করব।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা