kalerkantho

শুক্রবার। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ৪ ডিসেম্বর ২০২০। ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২

প্রথম স্ত্রীর মামলার পর ফরিদগঞ্জ পৌর মেয়রের সংবাদ সম্মেলন

চাঁদপুর প্রতিনিধি    

২২ নভেম্বর, ২০২০ ২২:৩৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



প্রথম স্ত্রীর মামলার পর ফরিদগঞ্জ পৌর মেয়রের সংবাদ সম্মেলন

চাঁদপুরে ফরিদগঞ্জ পৌরসভা মেয়র মাহফুজুর রহমান তার প্রথম স্ত্রীর বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ তুলেছেন। স্ত্রী সোনিয়া আক্তারের দ্বারা প্রতিনিয়ত মানসিক নির্যাতনের শিকার হয়ে বাধ্য হয়েছেন দ্বিতীয় বিয়ে করতে। তবে প্রথম স্ত্রী সংশোধন হয়ে ফিরে আসতে চাইলে সাদরে তাকে বরণেও প্রস্তুত রয়েছেন মেয়র মাহফুজ।

যৌতুক ও নারী নির্যাতন আইনে দায়ের করা প্রথম স্ত্রী সোনিয়া আক্তারের আদালতে মামলার বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মাহফুজুল হক। রবিবার বিকেলে ফরিদগঞ্জ প্রেস ক্লাবে অনুষ্ঠিত এই সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, আমি ষড়যন্ত্রের শিকার। যখনই নির্বাচন ঘনিয়ে আসে, তখনই একটি চক্র তাকে নানাভাবে হেনস্তা করার জন্য উঠে পড়ে লাগে। 

আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে বর্তমান মেয়র মাহফুজ যখন নির্বাচন করার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন- তখনি প্রথম স্ত্রীকে দাবার ঘুঁটি হিসেবে প্রতিপক্ষরা ব্যবহার করে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করিয়েছেন। মেয়র বলেন, এই মামলার পুরো বিবরণ পড়লে যে কেউ নিশ্চিত হবে এটি সাজানো নাটক। 

মেয়র মাহফুজ অভিযোগ করেন, প্রেম করে বিয়ে করলেও কখনো সুখি ছিলেন না তিনি। তার স্ত্রী সোনিয়া আক্তার অর্থ লোভ, সংসারের প্রতি উদাসীনতা এবং পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গে অশোভন আচরণ করতেন। ফলে সর্বদা ভীতসন্ত্রস্ত ছিলেন তিনি। শুধু তাই নয়, প্রায়শই স্ত্রীর মারমুখি আচরণের শিকার হতেন। এতে নারী নির্যাতন নয়, পুরুষ হিসেবে তিনিই নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। এক কথায় বলতে হয় তার স্ত্রী সোনিয়া আক্তার মানসিকভাবে অসুস্থ। প্রায়ই সে তার তিন সন্তানকে ফেলে রেখে ঘর থেকে বেরিয়ে যেতেন। 

ফলে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে পরামর্শ করে এবং ছোট তিনটি সন্তানকে পালন করতে দ্বিতীয় বিয়ে করতে বাধ্য হন মেয়র মাহফুজ। প্রথম স্ত্রীর প্রতি আহবান জানিয়ে মাহফুজ বলেন, তারপরও প্রথম স্ত্রী সোনিয়া ফিরে আসতে চাইলে তিনি সন্তানদের দিকে তাকিয়ে তাকে ঘরে তুলে নেবেন। মেয়রের দাবি, আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনকে ঘিরে নানা চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্রের শিকার তিনি। যে কারণে, বিশেষ মহলটি তার প্রথম স্ত্রীকে দিয়ে তথাকথিত নির্যাতন ও যৌতুকের অভিযোগ এনে আদালতে মামলা করেছে।

সংবাদ সম্মেলনে ফরিদগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও সম্পাদকসহ চাঁদপুর ও ফরিদগঞ্জ উপজেলায় কর্মরত সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। 

উল্লেখ্য, গত ১৭ নভেম্বর ফরিদগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মাহফুজুল হকের বিরুদ্ধে তার স্ত্রী সোনিয়া আক্তার বাদী হয়ে চাঁদপুর আদালতে নারী যৌতুক নির্যাতন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা