kalerkantho

শনিবার । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৮ নভেম্বর ২০২০। ১২ রবিউস সানি ১৪৪২

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩ দিনব্যাপী 'প্যারানরমাল'

ত্রিশাল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

৩১ অক্টোবর, ২০২০ ১৬:৩৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩ দিনব্যাপী 'প্যারানরমাল'

করোনার সময়ে বাংলাদেশের নাট্যচর্চা স্থবির হয়ে পড়েছিল। নাট্যচর্চার ধারাকে সমুন্নত রাখতে গত ২৩ অক্টোবর থেকে জাতীয় নাট্যশালা খুলে দেওয়া হয়েছে। এই সিদ্ধান্তে থিয়েটারে এসেছে সৃষ্টির জোয়ার। তারই ধারাবাহিকতায় সমসাময়িক সংকটের গল্প নিয়ে ও রুফটপ থিয়েটার ধারণা নিয়ে গবেষণার অংশ হিসেবে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে 'প্যারানরমাল' মঞ্চস্থ হলো। বিশ্ববিদ্যালয়ের থিয়েটার অ্যান্ড পারফরম্যান্স স্টাডিজ বিভাগের সহযোগিতায় আজ বিশ্ববিদ্যালয়ের টিচার্স কোয়াটারের ছাদে এনভায়নমেন্টাল থিয়েটার আদলে এই থিয়েটার মঞ্চস্থ হয়।

নাটকটির নির্দেশনা দিয়েছেন নাট্যকলা বিভাগের শিক্ষক মো. মাজহারুল হোসেন তোকদার। অভিনয় করছেন শিক্ষক আসিফ ইকবাল আরিফ ও নাহিদুল ইসলামসহ ১১ জন।

উদ্বোধনী আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমান, শিক্ষক সমিতির সভাপতি মো. নজরুল ইসলাম, টিপিএস বিভাগের বিভাগীয় প্রধান আল জাবির এবং বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকবৃন্দ। 

নাটকের গল্পে দেখা যায়, একটি বাসার ছাদে ছয়জন ভূত আখড়া বানায়। সেখানে একজন তরুণীর উপর ভূতের আছড় পরে। তরুণীর বাবা একজন ফকিরকে ডাকেন ভূত তাড়ানোর জন্য। ফকির একে একে ছয়টি ভূত হাজির করে। শিশু দুই ভূতকে বোতলে বন্দি করে। অন্য চার ভূতদের মেরে মেরে স্থির করে। তারপর বড় চার ভূত একে একে তাদের মৃত্যুর কারণ, তাদের অতৃপ্ততার গল্প শোনায় আর মরে যায়। যেখানে খুন, ধর্ষণ, যুদ্ধ ও করোনার গল্প উঠে আসে। 

নাটকটির নির্দেশক মাজহারুল হোসেন তোকদার জানান, করোনা দুর্যোগে সব সেক্টরে স্থবিরতার পাশাপাশি সাংস্কৃতিক অঙ্গনেও স্থবিরতা বিরাজ করছে। স্বল্প পরিসরে বাসার ছাদেও সাংস্কৃতিক চর্চার অংশ হিসেবে এ নাটকটি প্রদর্শন করেছি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা