kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ৩ ডিসেম্বর ২০২০। ১৭ রবিউস সানি ১৪৪২

ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে গ্রেপ্তার ২

বাড়িতে একা পেয়ে বিধবাকে ফেরিওয়ালার ধর্ষণ!

নিজস্ব প্রতিবেদক, নোয়াখালী   

৩০ অক্টোবর, ২০২০ ১৭:২৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাড়িতে একা পেয়ে বিধবাকে ফেরিওয়ালার ধর্ষণ!

আটক ফেরিওয়ালা শ্রীবাস দেব নাথ

নোয়াখালীর হাতিয়ার চরকিং ইউনিয়নের দক্ষিণ গামছাখালী গ্রামে ঘরে ঢুকে এক বিধবা নারীকে (৩৯) ধর্ষণের অভিযোগে এক ফেরিওয়ালাকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। অপরদিকে চর ইশ্বর ইউনিয়নে এক কিশোরীকে ধর্ষণচেষ্টায় দুজনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আটক ফেরিওয়ালা শ্রীবাস দেবনাথ (৪০) উপজেলার নলচিরা ইউনিয়নের ৯নম্বর ওয়ার্ডের ফজরম মাঝি এলাকার সুনীল দেবনাথের ছেলে। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার চরকিং ইউনিয়নের ৯নম্বর ওয়ার্ডের গামছাখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নির্যাতিতা নারী বাদী হয়ে ওই রাতেই অভিযুক্তের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

হাতিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কাঞ্চন কান্তি দাস ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার দক্ষিণ গামছাখালী গ্রাম থেকে পুলিশ তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

তিনি আরো জানান, আটক ফেরিওয়ালা সাইকেলে ফেরি করে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে বাদাম, মোল্লা বিক্রি করতেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে তিনি ফেরি করতে যান দক্ষিণ গামছাখালী গ্রামে। ওই সময় বিধবার মা ওষুধ কিনতে পাশের বাজারে যান। ছেলেও বাইরে ছিলেন। এ সময় ফেরিওয়ালা বিধবা নারীকে ঘরে একা পেয়ে ধর্ষণ করেন। এক পর্যায়ে তার চিৎকারে বাড়ির লোকজন এসে ধর্ষককে আটক করে পুলিশে দেয়।

এদিকে হাতিয়া উপজেলার চরঈশ্বর ইউনিয়নে এক কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে পুলিশ দুই যুবককে কারাগারে প্রেরণ করেছে। ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে আটককৃতরা হলেন- উপজেলার নলচিরা ইউনিয়নের ফজরম মাঝি গ্রামের জাকের হোসেনের ছেলে মনির হোসেন (২০) এবং একই এলাকার মো. শিপনের ছেলে আলা উদ্দিন (২২)।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা