kalerkantho

সোমবার । ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৩ নভেম্বর ২০২০। ৭ রবিউস সানি ১৪৪২

অ্যাম্বুলেন্সচালকের হাতে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা লাঞ্ছিত

নকলা প্রতিনিধি   

২৯ অক্টোবর, ২০২০ ২০:৪১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অ্যাম্বুলেন্সচালকের হাতে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা লাঞ্ছিত

রোগী পরিবহনের জন্য সরকারের নির্ধারিত ফি জনসম্মুখে টাঙানোর জন্য শেরপুরের নকলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের  (ভারপ্রাপ্ত) ডা. রবিউল করিমকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ ২৯ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় নকলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভবনের ভেতরে নকলা উপজেলায় কর্মরত ডাক্তার ও ভারপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে লাঞ্ছিত করা হয়।

লাঞ্ছনার শিকার ডা. রবিউল করিম বলেন, অ্যাম্বুলেন্সচালক হীরা গতকাল থেকে আমাকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে এসেছে এবং আজ সকাল সাড়ে ৯টা সময় হাসপাতালে ডিউটি পালন করার সময় শারীরিক ও মানসিকভাবে লাঞ্ছিত করে। পুরো ঘটনার বিবরণ আমি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে জানিয়েছি। তারাই বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করে বিস্তারিত জানাবেন। 

শেরপুর জেলা সিভিল সার্জন ডা. আব্দুর রউফ বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পরপরই তাকে শোকজ করা হয়েছে এবং ডাক্তারকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগে তদন্ত প্রতিবেদন দিতে নকলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সদ্য যোগদানকৃত ডাক্তার মোহাম্মদ গোলাম মোস্তাফাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। 

নকলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স অ্যাম্বুলেন্সচালক হীরা সরকার নির্ধারিত ফি নকলা থেকে ময়মনসিংহ রোগী পরিবহন ভাড়া ১১১০ টাকা। সে রোগীদের কাছ থেকে ২ থেকে ৩ হাজার টাকা নিয়ে রোগী পরিবহন করেন। গতকাল বুধবার নকলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে সরকারিভাবে নকলা থেকে ময়মনসিংহ রোগী পরিবহন ভাড়া ১১১০ টাকা চার্ট টাঙানোর পর থেকে এ ঘটনার সূত্রপাত। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা