kalerkantho

মঙ্গলবার । ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৪ নভেম্বর ২০২০। ৮ রবিউস সানি ১৪৪২

ব্যবসায়ীদের দাবির প্রেক্ষিতে আলম মার্কেটের সামনে পল্টুন স্থাপন

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি   

২৬ অক্টোবর, ২০২০ ২৩:২৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ব্যবসায়ীদের দাবির প্রেক্ষিতে আলম মার্কেটের সামনে পল্টুন স্থাপন

নৌ দুর্ঘটনা কমানোর লক্ষ্যে গত ৫ সেপ্টেম্বর বুড়িগঙ্গা নদীর কেরানীগঞ্জ প্রান্তে আলম মার্কেট ঘাটসহ দুই তীরের বেশ কয়েকটি ঘাট বন্ধ করে দেয় বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষ। এতে করে বিপাকে পরে যায় কেরানীগঞ্জের গার্মেন্ট পল্লীর ব্যবসায়ীসহ স্থানীয় এলাকাবাসী। বন্ধ হওয়া আলম মার্কেট ঘাটটি পুনরায় চালুসহ নৌ দুর্ঘটনা এড়াতে বেশ কয়েকটি দাবি ও প্রস্তাব নিয়ে বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কয়েক দফা আলোচনায় বসে কেরানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদসহ ব্যবসায়ী নেতারা। উক্ত দাবি দাওয়ার প্রেক্ষিতে আজ সোমবার সন্ধ্যায় আলম মার্কেট ঘাটে নৌকা চলাচলের  জন্য একটি পল্টুন স্থাপন করে বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, কেরানীগঞ্জ গার্মেন্টস ব্যবসায়ী মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মুসলিম ঢালী, যুগ্ম সাধারণ সম্পদক তোফাজ্জল হোসেন, সহসভাপতি মো. সেলিম, সদস্য মো. আতোয়ার, আঞ্চলিক শাখা যুবলীগের সভাপতি মো. মানিক, থানা যুবলীগের সদস্য মো. শাহাদাৎ প্রমুখ।

সরেজমিন কেরানীগঞ্জের আলম মার্কেট ঘাট এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, নিরাপদ নৌ চলাচলের লক্ষে ঘাটে স্থাপন করা হয়েছে একটি পল্টুন। পল্টুন থেকে যাত্রীরা ডিঙি নৌকায় চরে নদী পার হচ্ছে। দীর্ঘদিন পরে ঘাট চালু হওয়ায় মাঝিদের মধ্যে খুশির জোয়াড় বইছে। পল্টুনটি দেখতে ভিড় করছে আসে পাশের লোকজন। পল্টুন স্থাপন করায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন স্থানীয় বাসিন্দারাও।

মো. জয়নাল নামে এক মাঝি বলেন, দীর্ঘদিন পরে আবারো ঘাটটি চালু হয়েছে, এতো দিন খায়া না খায়া অনেক কষ্ট করেছি। শাহীন আহমেদ ভাই, মুসলিম ঢালীভাইসহ সকলের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ। আমাদের রুটি রুজির আবার ব্যবস্থা হয়েছে।

মো. নজরুল নামের এক ব্যবসায়ী বলেন, এমনিতেই আমি হার্টের রোগী চলাচলে কষ্ট হয়। ঘাটটি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় এতোদিন আমার পারাপারে অনেক বেশি কষ্ট হতো। ঘাটটি চালু করতে যারা শ্রম দিয়েছেন তাদের সবার প্রতি আমরা এলাকাবাসী কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। এই ঘাটতি শুধু ব্যবসায়ীদের জন্য না, চুনকুটিয়া ও আগানগর ইউনিয়ন বাসীদের জন্যও গুরুত্বপূর্ণ বটে।

এ বিষয়ে কেরানীগঞ্জ গার্মেন্ট পল্লীর সাধারণ সম্পাদক মুসলীম ঢালী বলেন, ঘাটটি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় আমাদের ব্যবসায়ীরা দারুণ বিপাকে পড়ে গিয়েছিল। বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু ভাইয়ের নির্দেশে উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদ ভাই ও ব্যবসায়ী নেতা রবি বিআইডাব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করে পুনরায় ঘাটটি চালু করতে পেরেছি। এ জন্য আমাদের ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে বিপু ভাই, শাহীন ভাই, বিআইডাব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

গত বছর ঘাট বন্ধ হয়ে গিয়েছিল, বিপু ভাই শাহীন ভাই নৌমন্ত্রীর সঙ্গে সরাসরি কথা বলে সে সময় আমাদের সমস্যার সমাধান করে দেন। এবারও করে দিলেন। ঘাটটি পুনরায় চালু করার জন্য সাংবাদিকরাও তাদের লিখনীর মাধ্যমে ব্যবসায়ীদের দুর্দশার কথা তুলে ধরেছেন। আমি কেরানীগঞ্জের সব সাংবাদিক ভাইয়ের প্রতিও কৃতজ্ঞতা জানাই।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা