kalerkantho

শুক্রবার । ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৭ নভেম্বর ২০২০। ১১ রবিউস সানি ১৪৪২

সেন্টমার্টিন থেকে ফিরছে পর্যটক

কক্সবাজার সৈকতে ভেসে গেল মাদরাসাছাত্র

বিশেষ প্রতিনিধি, কক্সবাজার    

২৫ অক্টোবর, ২০২০ ২০:১১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কক্সবাজার সৈকতে ভেসে গেল মাদরাসাছাত্র

ফাইল ছবি

রবিবার দুপুরে কক্সবাজার সৈকতে গোসল করতে গিয়ে ঢেউয়ের তোড়ে ভেসে গেছে এক মাদরাসায় পড়ুয়া কিশোর। সৈকতের কলাতলি পয়েন্টে এ ঘটনা ঘটে। 

সৈকতের লাইফ গার্ড কর্মীরা জানান, জাহেদুল ইসলাম (১১) নামের ওই কিশোর তার আরো তিন বন্ধুসহ সৈকতে গোসল করতে নামে। এক পর্যায়ে তারা ঢেউয়ের তোড়ে ভেসে যেতে থাকলে লাইফ গার্ড কর্মীরা তিনজনকে উদ্ধার করেন। কিন্তু ততক্ষণে হারিয়ে যায় কিশোর জাহেদুল। কলাতলী আদর্শ গ্রামের বাসিন্দা জাহেদুল স্থানীয় একটি মাদরাসায় পবিত্র কোরআন হেফজ করে আসছিলেন।

এদিকে সাগরে আবহাওয়া পরিস্থিতি উন্নতি হওয়ায় সেন্টমার্টিন দ্বীপে আটকা পড়া পর্যটকরা রবিবার ফিরেছেন কক্সবাজারে। সৃষ্ট নিম্নচাপের প্রভাবে সমুদ্র উপকুলকে ৩নম্বর ও পরে ৪নম্বর সতর্ক সংকেত জারি করায় গত ২১ অক্টোবর থেকে সেন্টমার্টিন্স দ্বীপের সাথে নৌ চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে দ্বীপে বেড়াতে গিয়ে পাঁচ শতাধিক পর্যটক আটকা পড়ে।

অপরদিকে টানা পাঁচ দিন পর আবহাওয়া পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ায় সেন্টমার্টিন দ্বীপ থেকে ফিরেছে আটকা পড়া পর্যটকরা। রবিবার সকাল থেকে যথারীতি কক্সবাজার ও টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন সমুদ্র পথে ট্রলার ও জাহাজ চলাচল শুরু হয়েছে।

সেন্টমার্টিন যাত্রীবাহী ট্রলার মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আলম জানিয়েছেন, সকাল ১০টার দিকে সেন্টমার্টিন জেটি ঘাট থেকে পাঁচটি যাত্রীবাহী ট্রলারে করে স্থানীয় যাত্রীদের সাথে প্রায় দুই শতাধিক পর্যটক টেকনাফের উদ্দেশ্যে সেন্টমার্টিন ছেড়ে আসে।

সেন্টমার্টিন্স দ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদ মেম্বার মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহ জানান, কক্সবাজার থেকে সেন্টমার্টিন সমুদ্র পথে চলাচলকারী পর্যটকবাহী জাহাজ এমভি কর্ণফুলী যথারীতি দ্বীপে পৌঁছার পর বিকাল ৪টায় পর্যটক যাত্রীদের নিয়ে কক্সবাজারের দিকে রওয়ানা দেয়। পর্যটকবাহী জাহাজটি রাত ১০টা নাগাদ কক্সবাজার ঘাটে পৌঁছার কথা রয়েছে। 

পর্যটকবাহি জাহাজটির কক্সবাজার অফিসের ইনচার্জ হোসাইন ইসলাম বাহাদুর সন্ধ্যায় জানান, ৩৫০ জন যাত্রী নিয়ে কর্ণফুলী জাহাজ দ্বীপ ছেড়ে কক্সবাজারের পথে রয়েছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা