kalerkantho

শনিবার । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৮ নভেম্বর ২০২০। ১২ রবিউস সানি ১৪৪২

চাঁদপুরে কিশোর ইয়াসিন খুনের প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

চাঁদপুর প্রতিনিধি   

২৪ অক্টোবর, ২০২০ ২২:৫৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চাঁদপুরে কিশোর ইয়াসিন খুনের প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

চাঁদপুরে গত দুই সপ্তাহ আগে ছুরিকাঘাতে খুন হওয়া কিশোর মো. ইয়াসিনের ঘাতক মেহেদী হাসান প্রকাশ সাহেদ মিয়াজীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এই নিয়ে শনিবার সন্ধ্যায় সদর মডেল থানায় প্রেস ব্রিফিং করে ঘটনার কারণ উপস্থাপন করেছেন পুলিশ কর্মকর্তারা।

চাঁদপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার স্নিগ্ধা সরকার প্রেসব্রিফিংয়ে জানান, বড় ভাই ছোট ভাই দ্বন্দ্বের জের ধরে খুন হয় কিশোর মো. ইয়াসিন (১৬)। ঘটনার দিন গত ১০ অক্টোবর দুপুরে শহরের গনি আদর্শ হাইস্কুলের সামনে মো. ইয়াসিনের সঙ্গে ঘাতক মেহদেী হাসান প্রকাশ সাহেদ মিয়াজীর (২০) কথা কাটাকাটি হয়।

তিনি আরো জানান, মূলত এলাকায় বড় ভাই ছোট ভাই দ্বন্দ্বের জের ধরে উত্তেজিত হয়ে পকেটে থাকা ধারাল চাকু দিয়ে সাহেদ মিয়াজী মো. ইয়াসিনের গলায় আঘাত করে। এতে ঘটনাস্থলে লুটিয়ে পড়ে সে। পরে চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতাল এবং মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকায় নেওয়ার পথে মারা যায় মো. ইয়াসিন।

এই ঘটনার পর গাঢাকা দেয় চাঁদপুর শহরের কোড়ালিয়া এলাকার মফিজ মিয়াজীর ছেলে মেহেদী হাসান প্রকাশ সাহেদ। এই ঘটনায় সাহেদ মিয়াজীর সঙ্গে আরো কয়েকজন জড়িত ছিল। এমন তথ্য জানিয়েছে পুলিশকে।

এদিকে, ঘটনার দুই সপ্তাহ পর শনিবার ভোরে গোপন খবরের ভিত্তিতে জেলার ফরিদগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার করা হয় সাহেদকে। এসময় সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) হারুনুর রশিদ জেলা গোয়েন্দা পুলিশের সহায়তায় তাকে ধরতে সক্ষম হন।

পুলিশ জানিয়েছে, শনিবার বিকেলে চাঁদপুরের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম কামাল হোসেনের আদালতে অভিযুক্ত মেহেদী হাসান প্রকাশ সাহেদকে হাজির করে। এসময় হত্যাকাণ্ডের বর্ণনা দিয়ে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে অভিযুক্ত। পরে তাকে আদালতের নির্দেশে জেলহাজতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

প্রেসব্রিফিংয়ে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সদর মডেল থানার ওসি মো. নাসিমউদ্দিন, ওসি (তদন্ত) ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা হারুনুর রশিদ।

চাঁদপুর শহরে একটি বাড়ির নৈশপ্রহরী হারুন মোল্লার বড় ছেলে নিহত মো. ইয়াসিন। সে শহরের একটি টেইলারিং দোকানে কাজ করত। শহরের কোড়ালিয়া এলাকায়ও তাদের বাসা।

প্রসঙ্গত, যেদিন এই হত্যাকাণ্ড ঘটে সেদিন চাঁদপুর পৌরসভার নির্বাচন ছিল। আর গনি আদর্শ হাইস্কুলের ভোটকেন্দ্রের বাইরে এই নৃশংস হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা