kalerkantho

রবিবার । ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৯ নভেম্বর ২০২০। ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২

জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপে ৭ গ্রামের কৃষকের মুখে হাসি

দিনাজপুর প্রতিনিধি   

২৪ অক্টোবর, ২০২০ ১৯:০৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপে ৭ গ্রামের কৃষকের মুখে হাসি

দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপে অবসান ঘটলো ফুলবাড়ী উপজেলার সাতটি গ্রামের ৯০০ একর ফসলি জমির দীর্ঘ চার বছরের জলাবদ্ধতা। শনিবার ফুলবাড়ী উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের বারাইপাড়া এলাকায় কোদাল হাতে জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম ড্রেন নির্মাণের কাজ উদ্বোধন করেন। দীর্ঘ চার বছর জলাবদ্ধতার কারণে ৯০০ একর জমি অনাবাদি থাকার পর, পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা হওয়ায়, হাঁসি ফুটেছে উপজেলার দুইটি ইউনিয়নের সাত গ্রামের কয়েক হাজার কৃষকের মুখে।

স্থানীয় কৃষকরা জানান, দীর্ঘ চার বছর ধরে ফুলবাড়ির খয়েরবাড়ি-দৌলতপুরসহ আশপাশের প্রায় তিন হাজার বিঘা জমিতে জলাবদ্ধতা থাকার কারণে কোনো ধরণের চাষাবাদ হচ্ছিল না। দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন মহলে কৃষকরা দাবি জানিয়ে আসলেও কোনো উপকার পায়নি। সর্বশেষ দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক মহোদয় নিজেই এই জলাবদ্ধতা নিরসনে মাঠে নেমেছেন।

কৃষক গোলাম রব্বানী বলেন, আমি পৈত্রিক সূত্রে আট বিঘা জমি পেয়েছি। এই জমি দিয়ে চাষাবাদ করে চলতো। কিন্তু গত চার বছর থেকে সেই জমিতে জলাবদ্ধতার কারণে চাষাবাদ করতে পারছি না। তাই বাধ্য হয়ে এখন অন্য পেশা বেঁছে নিয়েছি। 

খয়েরবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান আবু তাদের মন্ডল বলেন, দীর্ঘ চার বছর থেকে সাতটি গ্রামের ৯০০ একর জমি পানিতে তলিয়ে আছে। জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপে পানি নিষ্কাশনের রাস্তা তৈরি হলো।

দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল আলম বলেন, ফুলবাড়ি উপজেলার খয়েরবাড়ি ও দৌলতপুর এলাকার প্রায় দুই হাজার একর জমিতে দীর্ঘদিন ধরে জলাবদ্ধতা থাকার কারণে কৃষকরা ফসল ফলানো থেকে বঞ্চিত ছিল। আমার কাছে বিষয়টি এলাকাবাসী জানালে আমি সরেজিমন পরিদর্শন করি। কয়েক হাজার পরিবার যাতে তাদের কৃষি জমিতে ফসল ফলাতে পারে সেজন্য একটি ৩০০ ফিট পরিমান ড্রেন নির্মাণ করার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। তার প্রেক্ষিতেই আজকে এলাকাবাসীর সাথে একাত্বতা ঘোষণা করে এবং স্বেচ্ছাশ্রমে ড্রেন নির্মাণের কাজ শুরু করা হয়। ড্রেন নির্মাণ শেষ না হওয়া পর্যন্ত পুরো বিষয়টি আমি নিজেই তদারকি করব। এ ছাড়াও ড্রেন নির্মাণের ফলে যেসব কৃষিকের ক্ষতি হয়েছে তারাও জমি এবং ফসলের ক্ষতিপূরণ পাবেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা