kalerkantho

শনিবার। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ৫ ডিসেম্বর ২০২০। ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২

আড়াইহাজারে ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুন

আড়াইহাজার (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

২৪ অক্টোবর, ২০২০ ০৪:২৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আড়াইহাজারে ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুন

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে পারিবারিক কলহের জের ধরে কলাগাছ পড়ে বালতি ভাঙাকে কেন্দ্র করে ছোট ভাই ও তার ছেলে, স্ত্রী মিলে পিটিয়ে হত্যা করেছে বড় ভাই ফজলু (৬৫)কে। ঘটনাটি ঘটেছে, শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) বিকাল পৌনে ৪টায় উপজেলার ব্রাহ্মন্দী পূর্বপাড়া এলাকায়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ব্রাহ্মন্দী পূর্বপাড়া এলাকার মৃত গণি মিয়ার ছেলে ফজলু ও এবাদুল্লাহর মধ্যে পারিবারিক কলহ চলে আসছিল। বিকালে বড় ভাই ফজলু তার বাড়ির সীমানায় একটি প্লাস্টিকের বালতি রেখে কাজ করছিল। ওই সময় সীমানা সংলগ্ন এবাদুল্লাহর একটি কলাগাছ আচমকা বালতির ওপর পড়ে। এতে করে প্লাস্টিকের বালতিটি ভেঙে যায়। এ বালতি ভেঙে যাওয়াকে কেন্দ্র করে বড় ভাই ফজলু ছোট ভাইয়ের কাছে বালতির ক্ষতি পূরণ দাবি করে। কিন্তু ছোট ভাই এবাদুল্লাহ ক্ষতি পূরণ দিতে অস্বীকার করে।

এ ঘটনায় দুই ভাই ফজলু ও ছোট ভাই এবাদুল্লাহ তর্কে লিপ্ত হয়। পরে এবাদুল্লাহর ছেলে সাকিব ও স্ত্রী সেলিনা আক্তার তাদের তর্কে জড়িয়ে পড়ে। ওই সময় তারা ক্ষিপ্ত হয়ে ফজলুকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে ও কিল ঘুষি মেরে ঘটনাস্থলেই হত্যা করে। পরে এবাদুল্লাহ ও তার ছেলে সাকিব পালিয়ে যায়। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত ফজলুর লাশ উদ্ধার করে এবং ঘটনার সঙ্গে জড়িত এবাদুল্লার স্ত্রী সেলিনা আক্তার (৪০)কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

স্থানীয় লোকজন জানান, বৃহস্পতিবার থেকে শুক্রবার দিনব্যাপী প্রচণ্ড বৃষ্টির কারণে মাটি নরম হয়ে কলাগাছটি পড়ে যায়। এতে কোনো পক্ষেরই হাত না থাকলেও পূর্বের বিরোধের কারণে উভয় পক্ষই ঝগড়ায় জড়িয়ে পড়ে।

আড়াইহাজার থানার ওসি নজরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, এ ঘটনায় এবাদুল্লাহর স্ত্রী সেলিনাকে তাৎক্ষণিক গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং বাকীদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছিল।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা