kalerkantho

মঙ্গলবার । ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৪ নভেম্বর ২০২০। ৮ রবিউস সানি ১৪৪২

বৈরী আবহাওয়ায় মির্জাপুরে নেই পূজার আমেজ

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি   

২৩ অক্টোবর, ২০২০ ২১:১১ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বৈরী আবহাওয়ায় মির্জাপুরে নেই পূজার আমেজ

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে গত বুধবার সকাল থেকে বৃষ্টি হচ্ছে। কখনো গুঁড়ি গুঁড়ি আবার কখনো মুষলধারে বৃষ্টি। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর আবহাওয়া ভালো থাকলেও শুক্রবার ভোর থেকে দুপুর দুইটা পর্যন্ত মুষলধারে বৃষ্টি হয়েছে। আকাশ কালো হয়ে মেঘ জমে আছে। বৃষ্টির সাথে বইছে দমকা বাতাস। সেই সাথে হঠাৎ আগমন হয়েছে শীতের। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে পূজার তেমন কোনো আমেজ নেই।

মহামারি করোনার কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সর্বত্র উদযাপন হচ্ছে নিয়মমরক্ষার পূজা। প্রতিবছরের ন্যায় পূজা মন্ডপগুলোতে প্যান্ডেল তৈরি, আলোকসজ্জা, আতশবাজি, ঢাকের বাজনা, মাইক ও সাউন্ডবক্স বাজানোতে মানা হয়েছে সরকারি নির্দেশনা।  

এদিকে বুধবার সকাল থেকে বৃষ্টি হওয়ায় মির্জাপুর পৌর শহরের বিভিন্ন সড়কে বৃষ্টির পানি জমে ভোগান্তিতে পড়েছে ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষ। প্রচন্ড বাতাস প্রবাহিত হচ্ছে। এরই মধ্যে হঠাৎ আগমন হয়েছে শীতের। হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গোৎসব গতকাল বৃহস্পতিবার ষষ্ঠী পূজার মধ্যে দিয়ে শুরু হয়েছে আনুষ্ঠানিকতা। 

মির্জাপুর পৌরসভা এলাকায় ৪৪টি মন্ডপসহ এ উপজেলায় ২১০টি মন্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বৃহস্পতিবার রাতে পৌর এলাকার মির্জাপুর গ্রামের সাহাপাড়ার কয়েকটি পূজামন্ডপ ঘুরে দেখা গেছে, দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া ও করোনা আতঙ্কে মন্ডপগুলো আইনশৃঙ্খলায় নিয়োজিত নিরাপত্তা বাহিনী, আয়োজক ও পুরোহিত ছাড়া বাইরের কাউকে দেখা যায়নি। কোনো ভক্ত না আসায় পূজার আমেজে ভাটা পড়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টা থেকে বিকেলে পাঁচটা পর্যন্ত মুষলধারে বৃষ্টি হয়। শুক্রবার ভোর রাত থেকে অবধি প্রবল বর্ষণের কারণে পৌর শহরের কুমুদিনী হাসপাতাল রোড, কলেজ রোড ও বংশাই রোডে পানি জমে থাকে। এতে চলাচলে দুর্ভোগ পোহাতে হয়। 

মির্জাপুর গ্রামের বিপ্লব সরকার, বংশী সাহা, আন্ধরা গ্রামের বিপ্লব রাজবংশী, শ্রীহরিপাড়া গ্রামের রতন সূত্রধর জানান, প্রতি বছর দুর্গাপূজায় আজারো দর্শকের উপস্থিতি আমারা আনন্দ পায়। কিন্তু এ বছর করোনার কারণে অনেক কিছু মেনে পূজা করতে হচ্ছে। তাছাড়া গত তিনদিন ধরে বৃষ্টি হওয়ায় পূজার তেমন আমেজ নেই বলে তারা জানান।

শ্রীহরিপাড়া কালি মন্দিরের সভাপতি ইন্দ্রোজিত সুত্রধর বলেন, সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক স্বাস্থ্যবিধি মেনে দুর্গাপূজার আয়োজন করা হয়েছে। প্রতি বছর দুর দুরান্ত থেকে ভক্তরা আসেন। কিন্তু এ বছর করোনা মহামারির কারণে ভক্তদের উপস্থিতি অনেক কম। 

মির্জাপুর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সরকার হিতেশ চন্দ্র পুলক বলেন, মহামারি করোনার কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিয়মরক্ষার পূজা করছি। হঠাৎ বৃষ্টি হওয়া, দমকা বাতাস ও শীতের আগমন ঘটায় এবার মনেই হচ্ছে না পূজা হচ্ছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা