kalerkantho

শুক্রবার । ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৭ নভেম্বর ২০২০। ১১ রবিউস সানি ১৪৪২

ফুপুর প্রেমের সম্পর্ক জেনে যাওয়ায় মরতে হলো শিশু সানজিদাকে

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুষ্টিয়া   

১৯ অক্টোবর, ২০২০ ১৬:২৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ফুপুর প্রেমের সম্পর্ক জেনে যাওয়ায় মরতে হলো শিশু সানজিদাকে

কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হরিনারায়ণপুর কাচারি মাঠের পাশের একটি পরিত্যক্ত টয়লেট থেকে গত রবিবার রাতে ৬ বছরের শিশু সানজিদার মরদেহ উদ্ধারের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই পুলিশ এই হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত শিশুটির ফুপু সুমনাকে (১৪) গ্রেপ্তার করেছে। এদিকে গ্রেপ্তারের পরপরই ঘাতক ফুপু শিশু সানজিদাকে হত্যার কথা স্বীকার করেছে।

আজ সোমবার ময়নাতদন্ত শেষে শিশুটির মরদেহ নিজ গ্রামে দাফন এবং ঘাতক সুমনাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়। নিহত শিশুটির বাবার নাম সোহাগ হোসেনের। আর ঘাতক সুমনা সোহাগ হোসেনের আপন বোন। রবিবার দুপুরে নিখোঁজ হয় শিশুটি।

এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, সানজিদা দুপুরে বাড়ির বাইরে গেলে আর ফিরে না আসায় বিকেল থেকে বাজারে মাইকিং করে তার বাবা সোহাগ হোসেন। সন্ধ্যার পর এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা কাচারি মাঠের পাশে একটি পরিত্যক্ত টয়লেটে শিশুর মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে। খবর পেয়ে কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানা পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে এবং হত্যার সাথে জড়িত সুমনাকে গ্রেপ্তার করে।

কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত বলেন, পরিত্যক্ত একটি টয়লেট থেকে সানজিদা নামের শিশুটির মরদেহ উদ্ধারের পরপরই তার একমাত্র ঘাতক ফুপু সুমনাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের পরপরই সুমনা তার সাথে প্রতিবেশী এক যুবকের প্রেমের সম্পর্ক জেনে যাওয়ায় সানজিদাকে হত্যা করে বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে। তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা