kalerkantho

শুক্রবার । ১৪ কার্তিক ১৪২৭। ৩০ অক্টোবর ২০২০। ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

গরু চোরের 'অভয়ারণ্য'

বানারীপাড়া (বরিশাল) প্রতিনিধি   

১৮ অক্টোবর, ২০২০ ২১:৫২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গরু চোরের 'অভয়ারণ্য'

প্রতীকী ছবি

বরিশালের বানারীপাড়ায় একের পর এক গরু চুরির ঘটনায় ঘটছে। এতে দিশেহারা ও সর্বস্বান্ত হয়ে পড়ছে খামারিরা। উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় প্রায়ই গরু চুরি ঘটনা ঘটলেও এর সঙ্গে জড়িত কাউকে গ্রেপ্তার কিংবা গরু উদ্ধার করতে পারছে না পুলিশ। সর্বশেষ বৃহস্পতিবার গভীর রাতে উপজেলার সলিয়াবাকপুর ইউনিয়নের চৌয়ারীপাড়া গ্রামের (বোর্ড স্কুল সংলগ্ন) মাহফুজুর রহমান লিটন মৃধার 'আল-এহ্সান ডেইরী ফার্ম' হতে ছয়টি গরু চুরি হয়ে যায়। ফার্মের সাতটি গরুর মধ্যে ছয়টি চুরি হয়ে যাওয়ায় লিটন পাগলপ্রায়।

লিটন মৃধা বলেন, আমি রাত একটা পর্যন্ত ফার্মে কাজ করেছি। যখন কাজ করে যাই তখন আমি সাতটি গরু শক্ত করে বেঁধে দরজায় তালা লাগিয়ে যাই। দুর্বৃত্তরা যে গরুগুলো চুরি করতে পারেনি সেটি কিছুটা হিংস্র প্রকৃতির। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে তাকে সর্বস্বান্ত করার জন্য পরিকল্পিতভাবে গাভীগুলো চুরি করা হয়েছে বলে তার ধারণা। চুরি হয়ে যাওয়া ছয়টি গরুর আনুমানিক মূল্য ১৫ লাখ টাকা বলে দাবি লিটনের।

এদিকে কিছুদিন পূর্বে পৌর শহরের ২নম্বর ওয়ার্ডের মনিরুজ্জামান লালের বিশালাকৃতির দুটি গাভী ও উপজেলার সদর ইউনিয়নের জম্বদ্বীপ গ্রামের কৃষক ইয়ার হোসেনের একটি ষাড় চুরি হয়ে যায়। এ ছাড়াও উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় বেশ কয়েকটি গরু চুরি খবর পাওয়া গেছে। 
সংঘবদ্ধ একটি চক্র এসব গরু চুরির সঙ্গে জড়িত রয়েছে বলে জানা গেছে। এক এলাকার গরু চুরি করে দূর পথের অন্য এলাকায় বিক্রি করায় এরা ধরাছোয়ার বাইরে থেকে যাচ্ছে। চুরি করা সিংহভাগ গরু নৌ-পথে ট্রলারে নিয়ে যাওয়া হয়।

বানারীপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হেলাল উদ্দিন বলেন, সংঘবদ্ধ এ চক্রটিকে চিহ্নিত করে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা