kalerkantho

শুক্রবার । ১৪ কার্তিক ১৪২৭। ৩০ অক্টোবর ২০২০। ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

সিঁধ কেটে ঘর থেকে তুলে নিয়ে ৬ বছরের শিশুকে ধর্ষণ

বারহাট্টা (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি   

১৮ অক্টোবর, ২০২০ ০০:৫০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সিঁধ কেটে ঘর থেকে তুলে নিয়ে ৬ বছরের শিশুকে ধর্ষণ

প্রতীকী ছবি

নেত্রকোনার বারহাট্টায় ছয় বছরের এক শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সিঁধ কেটে ঘর থেকে তুলে নিয়ে শিশুটিকে ধর্ষণ করা হয়। শিশুটি বর্তমানে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। উপজেলার সিংধা ইউনিয়নের আলোকদিয়া-পূর্বপাড়া গ্রামে শুক্রবার রাতে এই বর্বরোচিত ঘটনা ঘটে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাইদুর রহমান ও ফকরুজ্জামান জুয়েল এবং বারহাট্টা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় বিভিন্ন সূত্র জানায়, নির্যাতনের শিকার শিশুটি একটি মহিলা মাদরাসার শিক্ষার্থী। সে শুক্রবার রাতে তার অন্য দুই বোনের সঙ্গে এক বিছানায় ঘুমিয়েছিল। একই ঘরের অন্য একটি বিছানায় ঘুমিয়েছিলেন তার বাবা-মা। রাত আনুমানিক ৩টার দিকে বাবা-মা বুঝতে পারেন যে তাদের ছোট মেয়ে ঘরে নেই। ঘরের দরজা খোলা। তখন তারা ঘরের বাইরে গিয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। অবশেষে বাড়ির নিকটবর্তী কংস নদের পাড় থেকে শিশুটিকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। তাদের বসত ঘরের একপাশে সিঁধ কাটা রয়েছে। দুর্বৃত্তরা এই সিঁধ দিয়ে ঘরে প্রবেশ করেছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে।

শিশুটির বাবা রোকন মিয়া শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে মোবাইল ফোনে জানান, উদ্ধার করার পর শিশুটিকে চিকিৎসার জন্য পার্শ্ববর্তী মোহনগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। বর্তমানে তাকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তিনি ময়মনসিংহে রয়েছেন। রবিবার থানায় মামলা করা হবে।

ওসি মিজানুর রহমান শনিবার রাতে জানান, আলোকদিয়া-পূর্বপাড়া গ্রামে শুক্রবার রাতে একটি শিশু ধর্ষিত হওয়ার কথা শোনা যাচ্ছে। খবর পেয়ে তিনি শনিবার দুপুরে ও সন্ধ্যায় দুইবার ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছেন। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাইদুর রহমান ও ফকরুজ্জামান জুয়েল স্যারও ঘটনাস্থলে গিয়েছিলেন। ঘরে সিঁধ কাটা রয়েছে। এখনো পর্যন্ত লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায় নাই। তবে ঘটনাটিকে আমলে নিয়ে দোষী ব্যক্তিকে চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা