kalerkantho

সোমবার । ৩ কার্তিক ১৪২৭। ১৯ অক্টোবর ২০২০। ১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

উপবৃত্তির নামে 'বিকাশ প্রতারণা'

ঘাটাইল (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি   

১ অক্টোবর, ২০২০ ১৬:১৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



উপবৃত্তির নামে 'বিকাশ প্রতারণা'

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে কলেজ শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে উপবৃত্তির টাকা নিশ্চিত করার কথা বলে বিকাশের মাধ্যমে হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে একটি প্রতারক চক্র। শিক্ষা বোর্ডের কর্মকর্তা ও কলেজশিক্ষক পরিচয় দিয়ে এ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে বলে জানান প্রতারণার শিকার শিক্ষাথী ও অভিভাবকরা।

জানা যায়, ঘটাইল উপজেলার দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীরা নির্দিষ্টহারে সরকারি উপবৃত্তি পেয়ে আসছে। সম্প্রতি কলেজ পর্যায়ে উপবৃত্তি প্রাপ্তদের তালিকা প্রকাশ করে কলেজে পাঠিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। তালিকা আসার পর থেকেই শিক্ষা বোর্ড কর্মকর্তা ও কলেজশিক্ষক পরিচয়ে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের ফোন করছে প্রতারক চক্র। শিক্ষার্থীদের কাছে উপবৃত্তির টাকা পেতে নিদিষ্ট অঙ্কের টাকা বিকাশে শর্ত দিচ্ছে। শিক্ষার্থীরা টাকা পাঠানোর পরেই সেই নম্বরটি বন্ধ করে দিচ্ছি প্রতারক চক্র। এভাবে তারা হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।

প্রতারণার শিকার উপজেলার সাগরদিঘী এলাকার বেইলা গ্রামের জব্বার হোসেন বলেন, গত মঙ্গলবার ফোন আসে কলেজছাত্রী আকলিমার কাছে। ফোনে বলা হয় 'তোমার দুই বছরের উপবৃত্তির টাকা জমা হয়েছে। তুমি কি টাকা তুলবে না তুলবে না। টাকা তুলতে চাইলে ১৫/২০ মিনিটের মধ্যে ০১৮৭৩০০৮১৮৯ বিকাশ নম্বরে ২৭ হাজার ৭০০ টাকা পাঠাও।' এই কথার ওপর ভিত্তি করে টাকা পাঠায় আকলিমা। টাকা পাঠানোর পর থেকে ওই নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়। একইভাবে সানবান্ধা গ্রামের এক শিক্ষার্থীর কাছ থেকে সমপরিমাণ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারাক চক্র।

সাগরদিঘী কলেজের অধ্যক্ষ নাছির উদ্দিন জানান, এটি প্রতারক চক্রের কাজ। কলেজের শিক্ষার্থীদের এ বিষয়ে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অঞ্জন কুমার সরকার বলেন, উপবৃত্তির বিষয়ে টাকা চাওয়া বা নেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। আর্থিক প্রলোভনে প্রতারক চক্রের খপ্পরে পড়ে টাকা লেনদেন না করতে সর্তক থাকতে বলেন তিনি। প্রয়োজনে মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস, কলেজ ও স্কুল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করার পরামর্শ দেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা