kalerkantho

শুক্রবার । ৭ কার্তিক ১৪২৭। ২৩ অক্টোবর ২০২০। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

আটক ১

ধামরাইয়ে ধর্ষণের শিকার 'রোহিঙ্গা যুবতী'

ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি   

১ অক্টোবর, ২০২০ ১৫:১৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ধামরাইয়ে ধর্ষণের শিকার 'রোহিঙ্গা যুবতী'

ঢাকার ধামরাইয়ে এক 'রোহিঙ্গা' যুবতী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। ধর্ষককে এলাকাবাসী আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। অভিযুক্ত আটক ধর্ষক আবুল কালাম আজাদ (৪০) ধামরাই উপজেলার বাইশাকান্দা ইউনিয়নের পটল পূর্বপাড়ার মৃত তুলা মিয়ার ছেলে। বৃহস্পতিবার ভোরে ঘটনাটি ঘটেছে পটল গ্রামে একটি ক্ষেতের মধ্যে। এ ঘটনায় পটল গ্রামের শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে ধামরাই থানায় মামলা দায়ের করেছে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, 'রোহিঙ্গা' যুবতী (২০) গত তিন দিন ধরে রঘুনাথপুর বাজার এলাকায় অবস্থান  করছিল। বুধবার রাতে রঘুনাথপুর বাজার থেকে ওই যুবতীকে ফুসলিয়ে একটি নৌকায় উঠিয়ে নিয়ে যায় আবুল কালাম। পরে তাকে পটল গ্রামের কাছে ফসলি জমিতে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে কালাম। এ সময় যুবতীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে আবুল কালামকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। পুলিশ ধর্ষিতাকে উদ্ধার করে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। 

মেয়েটি নিজের নাম বলেছে। আর বলতে পেরেছে তার বাবার নাম, জালাল মাঝি। মা-বাবা নেই। তারা দুই ভাই ও পাঁচ বোন। কোথায় থাকে এবং তাদের গ্রামের নামও সঠিকভাবে বলতে পারে না। তবে তারা নদী পার হয়ে এসেছে- এটুকু বলতে পারে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ধামরাই থানার ওসি দীপক চন্দ্র সাহা জানান, ধর্ষিতার ভাষা শুনে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে- মেয়েটি রোহিঙ্গা। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা