kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৩ কার্তিক ১৪২৭। ২৯ অক্টোবর ২০২০। ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

অমানবিক! সুদের টাকা দিতে না পারায় গৃহবধূকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি   

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ২১:২৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অমানবিক! সুদের টাকা দিতে না পারায় গৃহবধূকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া পৌরসভার এনায়েতপুরের আদর্শগ্রামে ঋণের সুদ দিতে না পারায় সোমা রানী দাস নামের এক গৃহবধূকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করা হয়েছে। আজ বুধবার দুপুরে এই নির্মম ঘটনা ঘটান দিপ্তী বেগম ও তার লোকজন।

জানা যায়, সোমা রানী দাস এনায়েতপুর আদর্শগ্রামের সঞ্জীব দাসের স্ত্রী। সুদের টাকার পাশাপাশি ঋণদাতা আরো ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন তার কাছে। 

সোমা রানী দাস জানান, তার গ্রামের আব্দুল কাদেরের মেয়ে দিপ্তী বেগম দীর্ঘদিন ধরে সুদের ব্যবসা করে আসছেন। দিপ্তী গ্রামের অত্যন্ত প্রভাবশালী। কিছুদিন আগে সোমা তার কাছ থেকে থেকে ৫০ হাজার টাকা ঋণ গ্রহণ করেন। আর্থিক অস্বচ্ছলতার কারণে তিনি সময়মতো সুদের টাকা পরিশোধ করতে না পারায় দিপ্তী বেগম তার লোকজন নিয়ে তার বাড়ি যান। পরে তাকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করেন। এ সময় সোমার কাছে আরো ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন দিপ্তী। 

এই ঘটনার একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। নির্যাতনের চিত্রটি ভিডিও ধারণ করেন স্থানীয় যুবকেরা। ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়ার পর থেকেই চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। এই ঘটনা জানার পর উল্লাপাড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দীপক কুমার দাশ পুলিশ বাহিনী নিয়ে ঘটনাস্থলে যান। ওসি দীপক কুমার দাশ বলেন, পুলিশ সোমাকে উদ্ধার করেছে। এ সময় দিপ্তী বেগমকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে থানায় চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করা হয়েছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা