kalerkantho

রবিবার । ৯ কার্তিক ১৪২৭। ২৫ অক্টোবর ২০২০। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

পাটগ্রামে জাল দলিল করে বিধবার জমি দখলচেষ্টার অভিযোগ

পাটগ্রাম (লালমনিরহাট) প্রতিনিধি   

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০৮:১৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পাটগ্রামে জাল দলিল করে বিধবার জমি দখলচেষ্টার অভিযোগ

ওয়ারিশ সূত্রে স্বামীর বসতভিটা থেকে পাওয়া জমি জাল দলিল করে দখলের অপচেষ্টার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। লালমনিরহাটের পাটগ্রাম পৌরসভার রসুলগঞ্জ দক্ষিণ কোটতলী এলাকার বিধবা লতিফা বেওয়া (৫০) গতকাল রবিবার বেলা  সাড়ে ১১ টায় পাটগ্রাম প্রেসক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে বিধবার পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন তাঁর ছোট মেয়ে সুমাইয়া আক্তার সুমি। বক্তব্যে লতিফা বেওয়া দাবি করেন, মৃত শ্বশুর রহিমুদ্দিন ১৯৭৩ সালে রসুলগঞ্জ মৌজার ১২৫৬ নং দলিল মূল্যে মৃত শুকুর চাঁনের নিকট ৩২ শতক ও ১৯৭৪ সালে ৪৫৫৬ নং দলিলে মৃত লিলি কান্ত দাসের নিকট থেকে ২২ শতক জমি কেনেন। 

পরবর্তীতে ওয়ারিশ সূত্রে স্বামী সফিয়ার রহমানের অংশের জমিতে ঘর-বাড়ি করে দীর্ঘদিন থেকে দুই মেয়েকে নিয়ে বসবাস করে আসছেন। ১৯৯০ সালের বিআরএস ভুয়া খতিয়ানে মৃত শুকুর চাঁনের ছেলে মৃত রামবাবু দাসের স্ত্রী শুশিলা রানীকে ওয়ারিশ বানিয়ে তাঁকে দিয়ে গত ১০ সেপ্টেম্বর ভুয়া জাল দলিল নিজ নামে করে নেন উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতা কাদের এলাহী লাভলু।  

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে লতিফা বেওয়া জানান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) ও জেলা জজের কার্যালয়ে সংরক্ষিত খতিয়ান বইয়ে উল্লিখিত জমির ৪০৪ নম্বর খতিয়ানের পাতাটি ছেঁড়া ও জেলা ভূমি রেকর্ড রুম এবং পাটগ্রাম পৌর তহশিল অফিসে রাখা খতিয়ান বইয়ে আঠা দিয়ে লাগানো ভুয়া খতিয়ানের পাতায় রামবাবু দাসের নাম সংযুক্ত করা পাতা পাওয়া গেছে। 

তিনি আরো বলেন, শুশিলা রানীর নিকট আত্মীয় ও প্রতিবেশী ধীরেন দাস, নরেন দাস, জিতেন দাস ও হরেন দাসের যোগসাজসে ভুয়া দলিল করেন। তাঁরাসহ জমি দখলের চেষ্টা করছে। বর্তমানে আমরা জীবন শঙ্কায় আছি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা