kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৬ কার্তিক ১৪২৭। ২২ অক্টোবর ২০২০। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ভ্রূণ হত্যা, নির্যাতন, যৌতুক দাবি- তিন অভিযোগে এসআইয়ের বিরুদ্ধে স্ত্রীর মামলা

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১০:২৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভ্রূণ হত্যা, নির্যাতন, যৌতুক দাবি- তিন অভিযোগে এসআইয়ের বিরুদ্ধে স্ত্রীর মামলা

যৌতুক দিতে অস্বীকৃতি জানানোয় স্ত্রীকে শারীরিক নির্যাতন করে হত্যার চেষ্টা ও ভ্রূণ হত্যার অভিযোগে মামলা দায়ের হয়েছে পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) ইফতেখায়ের মোহাম্মাদ গাউসুল আজমের বিরুদ্ধে। তিনি নওগাঁ জেলায় রিজার্ভ অফিসে কর্মরত। মামলাটি দায়ের করেছেন তার স্ত্রী বগুড়ার শেরপুর শহরের টাউন কলোনির বাসিন্দা তমানিয়া আফরিন তিনু।

শনিবার সকালে বাদীপক্ষের আইনজীবী এস এম আবুল কালাম আজাদ এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, বগুড়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতে ২২ সেপ্টেম্বর এই মামলা দায়ের হয়েছে। ওই আদালতের বিচারক নুর মোহাম্মাদ শাহরিয়ার কবীর মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বগুড়ার শেরপুর সার্কেল)-এর প্রতি নির্দেশ দেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার চেঁচড়া গ্রামের ইফতেখায়ের মোহাম্মাদ গাউসুল আজম বগুড়া মজিবুর রহমান কলেজের মাস্টার্সের ছাত্রী তমানিয়া আফরিন তিনুর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত ১১ ফেব্রুয়ারি তাদের বিয়ে হয়। প্রথম পক্ষের স্ত্রী ও সন্তানের বিষয়টি বিয়ের সময় গোপন রাখেন ওই পুলিশ কর্মকর্তা। এ অবস্থায় ঘর সংসারের একপর্যায়ে তমানিয়া আফরিন তিনু দুই মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন।

পরে এ বিষয়টি প্রকাশ হলে তিনুর সাথে তার স্বামীর বিরোধের সৃষ্টি হয়। গত ১৭ আগস্ট শেরপুরে তিনুর বাসায় গিয়ে ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন ওই পুলিশ কর্মকর্তা। কিন্ত যৌতুক দিতে অস্বীকার করেন তিনু। এ সময় ক্ষুদ্ধ হয়ে পুলিশ কর্মকর্তা নির্যাতনের একপর্যায়ে তিনুকে শ্বাসরোধে হত্যার চেষ্টা করেন। এ সময় তিনুর তলপেটে লাথি মেরে ভ্রূণ হত্যা করেন বলে অভিযোগ করা হয়। পরে স্থানীয় একটি ক্লিনিকে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে ওঠেন তিনু।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা