kalerkantho

শনিবার । ৮ কার্তিক ১৪২৭। ২৪ অক্টোবর ২০২০। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

কুষ্টিয়ায় ৬০০ টন চাল আত্মসাৎ, চেয়ারম্যান-মেম্বার কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুষ্টিয়া   

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৮:১৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কুষ্টিয়ায় ৬০০ টন চাল আত্মসাৎ, চেয়ারম্যান-মেম্বার কারাগারে

প্রতীকী ছবি

কুষ্টিয়ায় চাল আত্মসাৎ মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান, ইউপি সদস্য, ডিলার এবং এক আওয়ামী লীগ নেতাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ১০ টাকা কেজি দরের চাল আত্মসাতের অভিযোগে সদর উপজেলার গোস্বামী দূর্গাপুর ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। আজ বৃহস্পতিবার কুষ্টিয়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট-২ আদালতের বিচারক মো. মহসিন হাসান এ আদেশ দেন।

অভিযুক্তরা হলেন- গোস্বামী দুর্গাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা দবির উদ্দিন বিশ্বাস, ওই ইউনিয়নের মেম্বার মারুফুল ইসলাম, ডিলার মন্টু হোসেন ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি সরোয়ার হোসেন।

আদালত সূত্র জানায়, ইউপি চেয়ারম্যান দবির উদ্দিন বিশ্বাস তার সহযোগীদের সহায়তায় গত চার বছর ধরে গরীব-দুস্থদের জন্য সরকার নির্ধারিত খাদ্য সহায়তা প্রকল্পের ১০টাকা কেজি দরের চাল উত্তলোন করেন। চার বছরে প্রায় ৬০০ টন চাল আত্মসাৎ করেন তারা। যার বাজার মূল্য আড়াই কোটি টাকা। এই চাল তালিকাভুক্তদের না দিয়ে তা আত্মসাত করে ভাগবাটোযারা করে নেন তারা।

গত ১৮ এপ্রিল কালের কণ্ঠে 'কার্ডধারীরাই জানে না কর্ডের কথা' শিরোনামে  সংবাদ প্রকাশিত হলে তা আদালতের নজরে আসে। পরে কুষ্টিয়ার জেষ্ঠ বিচারিক হাকিম সেলিনা খাতুন এ বিষয়ে মামলাটি দায়ের করেন এবং ব্যবস্থা গ্রহণ করতে সদর থানার ওসি গোলাম মোস্তফাকে আদেশ দেন।

আদালতের সহকারী কৌঁসুলি (এপিপি) সুমিত্রা বিশ্বাস জানান, দুপুরে আসামিরা আদালতে উপস্থিত হয়ে জামিন আবেদন করলে বিচারক তা না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। ইতোপূর্বে আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছিল। তদন্ত শেষে কুষ্টিয়া পুলিশ আদালতে একটি তদন্ত প্রতিবেদন দখিল করেন। যেখানে গরীব ও অসহায় ব্যক্তিদের নামে বরাদ্ধকৃত ওএমএসের চাল আত্মসাৎ-এর সত্যতা পাওয়া গেছে বলে উল্লেখ করা হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা