kalerkantho

বুধবার । ১২ কার্তিক ১৪২৭। ২৮ অক্টোবর ২০২০। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

চুরির অপবাদে কমলগঞ্জে মনিপুরী নারীকে নির্যাতন

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি   

২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০৪:২৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চুরির অপবাদে কমলগঞ্জে মনিপুরী নারীকে নির্যাতন

ক্ষেতের সবজি চুরির অপবাদ এনে চাউবিহান দেবী (৬০) নামে এক মনিপুরী নারীর ওপর হামলা ও শারীরিক নির্যাতন করার অভিযোগ উঠেছে। আহত নারী কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন। মায়ের ওপর চুরির অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবি করেছেন ছেলে। ঘটনাটি ঘটেছে ১৯ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার কাটাবিল গ্রামে। এ ঘটনায় মনিপুরী পল্লীতে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পূর্বশত্রুতার জেরে শনিবার বিকেলে উপজেলার আদমপুর ইউনিয়নের কাটাবিল গ্রামের বাসিন্দা মৃত আব্দুল লতিফের ছেলে উমেদ মিয়া (৫০) ক্ষেতের সবজি চুরির মিথ্যা অপবাদ দিয়ে মনিপুরী ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী  সম্প্রদায়ভুক্ত তিন সন্তানের জননী চাউবিহান দেবীকে লাঠি দিয়ে মারধর করেন। এ সময় চাউবিহান দেবীর চিৎকারে স্থানীয় লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে আহত অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

অভিযুক্ত উমেদ আলী হামলার কথা অস্বীকার করে বলেন, মনিপুরী নারী আমার ক্ষেত থেকে সবজি চুরি করার সময় হাতেনাতে ধরেছিলাম; কিন্তু কোনো ধরনের মারধর করিনি। উল্টো আমার বাড়িতে গিয়ে আমার স্ত্রীকে মারধর করেন।

আহত চাউবিহানের ছেলে অপু সিংহ তাঁর মায়ের বিরুদ্ধে আনা সবজি চুরির অপবাদ মিথ্যা বলে দাবি করে বলেন, তাঁর মাকে ডেকে নিয়ে মারধর করা হয়। এটা এলাকাবাসী জানে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। 

স্থানীয় ইউপি সদস্য জুমের আলী বলেন, মনিপুরী নারীকে মারধর করার ঘটনা সত্য। তবে ক্ষেতের সবজি চুরির বিষয়টি তিনি জানেন না।

কমলগঞ্জ থানার ওসি আরিফুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আহত মনিপুরী নারীকে সোমবার কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দেখতে যান। ঘটনার তদন্ত হচ্ছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা