kalerkantho

শনিবার । ৮ কার্তিক ১৪২৭। ২৪ অক্টোবর ২০২০। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ভাবিকে হত্যা, দেবরের যাবজ্জীবন

রাজবাড়ী প্রতিনিধি   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ২০:৩০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভাবিকে হত্যা, দেবরের যাবজ্জীবন

রাজবাড়ীতে গৃহবধূ পারভীন হত্যা মামলায় দীর্ঘ শুনানি শেষে হামেদ আলী মন্ডল (৩৫) নামে এক ব্যক্তির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সেই সঙ্গে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৩ মাসের জেল দেওয়া হয়। সোমবার দুপুরে রাজবাড়ী জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক নিলুফার সুলতানা এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত হামেদ আলী মন্ডল রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানখানাপুর মল্লিকপাড়ার মৃত কেসতম আলী মন্ডলের ছেলে। এ সময় মামলার অপর তিন আসামী সুফিয়া বেগম প্রিয়া (২২), হাসিনা খাতুন (৫০) ও নাছি (৩০) কে খালাস দেওয়া হয়।

মামলার সূত্রে জানা গেছে, ২০১৪ সালের ৯ আগস্ট রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানখানাপুর মলি­কপাড়ার পারিবারিক কলোহের জের ধরে মৃত কেসমত আলী মন্ডলের বড় ছেলে কৃষক হাসেম আলীর স্ত্রী পারভীন (২৬) কে তার স্বামী ও সন্তানদের অনুপস্থিততে দেবর হামেদ আলী, দেবরের স্ত্রী সুফিয়া বেগম প্রিয়া, শাশুড়ি হাসিনা খাতুন ও ননদ নাছি খাতুন বটি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে ল্যাট্রিনে ফেলে রাখে। এ ঘটনায় পরদিন ১০ আগস্ট গৃহবধূ পারভীনের ভাই খোকন মোল্লা বাদী হয়ে চারজনকে আসামি করে রাজবাড়ী সদর থানায় মামলা করেন। যার দীর্ঘ শুনানি শেষে আজ রায় হলো।

রাজবাড়ী জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট উজির আলী জানান, দীর্ঘ শুনানি শেষে খানাখানাপুর মল্লিকপাড়ার গৃহবধূ পারভীন হত্যা মামলার রায় হয়েছে। এতে হামেদ আলী মন্ডল নামে একজনের যাবজ্জীবন দিয়েছেন বিজ্ঞ আদালতের বিচারক এবং মামলার অন্যান্যদের খালাস দিয়েছেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা