kalerkantho

সোমবার । ১০ কার্তিক ১৪২৭। ২৬ অক্টোবর ২০২০। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

সাংবাদিকদের নিয়ে জরুরি সম্মেলনে নৌকার প্রার্থী

চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচন বানচাল করতে চায় একটি অশুভ মহল

চাঁদপুর প্রতিনিধি   

২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ২৩:৫৯ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচন বানচাল করতে চায় একটি অশুভ মহল

উচ্চ আদালতে একের পর এক রিট করে চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনকে বানচাল করার অপচেষ্টা করছে স্বার্থান্বেষী একটি মহল। তবে এতে অশুভ মহলটি ব্যর্থ হবে বলে মন্তব্য করেছেন, নৌকা প্রতীকের মেয়রপ্রার্থী অ্যাডভোকেট জিল্লুর রহমান জুয়েল। রবিবার রাতে চাঁদপুর শহরে জরুরি এক সংবাদ সম্মেলন করে এসব কথা বলেন তিনি। 

উপস্থিত সাংবাদিকদের জুয়েল জানান, আগামী ১০ অক্টোবর অনুষ্ঠেয় চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনকে বানচাল করতে খোঁড়া যুক্তি দাঁড় করিয়ে উচ্চ আদালতে পৃথক দুটি রিট করেন দুই ব্যক্তি। আজ রবিবার উচ্চ আদালত তা খারিজ করে দেন। কিন্তু তারপরও নতুন করে আরেক ব্যক্তি রবিবারই নির্বাচন স্থগিত চেয়ে আবারও রিট করেন। আর এসব রিটে যেসব যুক্তি উপস্থাপন করা হয়েছে তার সঙ্গে বাস্তবতার কোনো মিল নেই বলে জানান, জুয়েল।

এসময় সাংবাদিকদের কাছে দৃঢ়চিত্তে মেয়রপ্রার্থী জুয়েল জানান, কোনো ষড়যন্ত্র বা চক্রান্ত এই নির্বাচনকে বানচাল করতে পারবে না। সুতরাং সব বাধা পেরিয়ে আগামী ১০ অক্টোবর চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচন শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হবে। এমনটা প্রত্যাশা করেন তিনি। 

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকট মজিবুর রহমান ভূঁইয়া, ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট জাহিদুল ইসলাম রোমান।

এদিকে চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচন স্থগিত চেয়ে হাইকোর্টে দায়েরকৃত রিট আবেদন খারিজ করে দিয়েছে। রবিবার শুনানি শেষে হাইকোর্টের বিচারপতি জেবিএম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলম সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই রিট খারিজ করে দেন। 

সূত্র জানিয়েছে বিচারপতি জেবিএম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চে নতুন করে আরো একটি রিট করা হয়েছে চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচন স্থগিত চেয়ে। 

চাঁদপুর শহরের পুরানবাজার এলাকার মো. আবুল খায়ের মিজি নামের আরেক ব্যক্তি নতুন করে এই রিট দাখিল করেন। তিনিও করোনা পরিস্থিতির কথা উল্লেখ করে চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচন স্থগিত চেয়েছেন। 

এর আগে গত ১৩ সেপ্টেম্বর হাইকোর্টের একটি বেঞ্চে চাঁদপুর পৌর নির্বাচন স্থগিত চেয়ে পৃথক রিট করা হয়।

রিটকারীরা হচ্ছেন- পৌরসভার জি টি রোডের বাসিন্দা মাহবুব আলম আখন্দ ও পুরানবাজার উত্তর শ্রীরামদীর বাসিন্দা মো. হাসিবুল হাসান।

প্রসঙ্গত, গত ৩ সেপ্টেম্বর চাঁদপুর পৌর নির্বাচনের পুনঃতফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী ১৫ সেপ্টেম্বর জেলা রিটার্নিং অফিসারের কাছে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন। ১৭ সেপ্টেম্বর মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই। ২৪ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন এবং ১০ অক্টোবর শনিবার ভোট গ্রহণের দিন ঘোষণা করা হয়।

চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে তিনজন প্রার্থী অংশ নিচ্ছেন। তারা হলেন- আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী অ্যাডভোকেট জিল্লুর রহমান জুয়েল, বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী আক্তার হোসেন মাঝি এবং বাংলাদেশ ইসলামী আন্দোলন মনোনীত প্রার্থী মামুনুর রশিদ বেলাল। এছাড়া ১৫ ওয়ার্ডে নারী ও পুরুষ মিলিয়ে আরো শতাধিক প্রার্থী কাউন্সিল পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা