kalerkantho

রবিবার । ৯ কার্তিক ১৪২৭। ২৫ অক্টোবর ২০২০। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

মাইক্রোবাস-পিকআপ সংঘর্ষে প্রাণ গেল পিতা-পুত্রের

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৩:৩২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মাইক্রোবাস-পিকআপ সংঘর্ষে প্রাণ গেল পিতা-পুত্রের

কিশোরগঞ্জের হাওড়ে যাওয়ার পথে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কে একটি যাত্রীবাহী মাইক্রোবাস ও পিকআপের মুখোমুখি সংঘর্ষে পিতা-পুত্রের মৃত্যু হয়েছে। আজ সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মহাসড়কের নান্দাইল হাইওয়ে থানার পশ্চিম দিকে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় নারী-শিশুসহ আরো ১২ জন আহত হয়েছেন।

নিহতরা হচ্ছেন এমদাদুল মোকাদ্দেছ ফাহাদ আলম (৩২) ও তাঁর পুত্র তুরান (৫)। আহতরা হচ্ছেন শারমীন আক্তার (১২, নিহতের স্ত্রী রেবু আক্তার (২৫), শাহনাজ বেগম (২৫), হোসাইন আহমেদ (২৫), জেবু আক্তার (৩৫), রুনা আক্তার (৪৫), হাসিনা শাহীন রোজী (৫২), বনা আক্তার (২০), মাখন (৫০), জারিফ (১২), ফেরদৌসী (৫০), শামীম (২৫)। আহতরা শেরপুর জেলার শ্রীবর্দি ও জামালপুর জেলার বকশিগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা। আহত হোসাইন আহমেদ বলেন, তাঁরা সকলেই নিকটাত্মীয়। হাওড় দেখার জন্য কিশোরগঞ্জের নিকলীর দিকে যাচ্ছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শীদের একটি সূত্র জানায়, ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কে কুকুরের একটি মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে চালক মাইক্রোবাসটি পাশ কাটিয়ে সামনে এগুতে গেলে বিপরীত দিক দেখে একটি পিকআপ চলে এলে মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে। এতে দুটি যানের সামনে অংশ দুমড়ে-মুচড়ে সড়কের পাশে গিয়ে ছিটকে সড়কের পাশে গিয়ে পড়ে। এতে ঘটনাস্থলেই এমদাদুল মোকাদ্দেছ ফাহাদ আলম (৩২) মারা যান। তাঁর কোলে বসে থাকা পুত্র তুরান (৫) গুরুতর আহত হয়। নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে শিশুটি মারা যায়। নিহত এমদাদুল মোকাদ্দেছ ফাহাদ আলম প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক। গত বছর তিনি শিক্ষকতা পেশায় যোগদান করেন। 

নান্দাইল হাইওয়ে থানার ওসি মো. মঞ্জুরুল হক বলেন, আহতদের প্রথমে নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লক্সে পাঠানো হয়। পরে সেখান থেকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা