kalerkantho

সোমবার । ১০ কার্তিক ১৪২৭। ২৬ অক্টোবর ২০২০। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

মাছ চাষের কৃ্ত্রিম বাঁধে জলাবদ্ধতা, কৃষকের ঘরে ঘরে কান্না

সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি    

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০৮:৫১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মাছ চাষের কৃ্ত্রিম বাঁধে জলাবদ্ধতা, কৃষকের ঘরে ঘরে কান্না

নওগাঁর সাপাহার উপজেলার ঐতিহ্যবাহী জবই বিলে মত্স্য আহরণের লোভে এভাবেই কৃত্রিম বাঁধ তৈরি করে পানির প্রবাহ থামিয়ে দিয়েছেন কিছু স্বার্থান্বেষী ব্যক্তি। ছবি : কালের কণ্ঠ

নওগাঁর সাপাহার উপজেলার ঐতিহ্যবাহী জবই বিলের ভাটির দিকে মত্স্য আহরণের নামে কৃত্রিম বাঁধ তৈরি করেছেন কিছু স্বার্থান্বেষী ব্যক্তি। এতে পানি চলাচলে বিঘ্ন ঘটায় উজানের হাজার হাজার বিঘা জমি অথই পানির নিচে তলিয়ে গিয়ে আমন ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ফলে স্বপ্নের ফসল হারিয়ে কৃষকের ঘরে ঘরে পড়েছে কান্নার রোল।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উপজেলার মাসনাতলা ঘাট এলাকায় রাস্তার বেশ কয়েকটি কালভার্টের নিচে বাঁশের বেড়া ও পলিথিন দিয়ে পানির স্বাভাবিক স্রোত থামিয়ে শুধু একটি সেতুর নিচ দিয়ে বিলের পানির প্রবাহের পথ তৈরি করে দেওয়া হয়েছে। মাছ শিকার করতে সেখানেও বাঁশের বেড়ার সহায়তায় সুতি জাল ঘিরে দেওয়া হয়েছে। এতে করে বিলের উপরিভাগের পানি স্বাভাবিক গতিতে নিচে নামতে না পেরে ফুলে-ফেঁপে উঠেছে। মত্স্য আহরণের নামে এ কাজের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন পাতাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মো. ইসমাইল ও তাঁর কিছু লোক।

ইউপি সদস্য ইসমাইল বলেন, ‘বিলের মত্স্য সংরক্ষণ করতে প্রতি বছরই এ ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়। এ জন্য মত্স্য অফিস থেকে আমাদের অনুমতি নেওয়া আছে।’ উপজেলা মত্স্য কর্মকর্তা রুজিনা আক্তার বলেন, ‘সুতি জালের কারণে বিলের পানির প্রবাহ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে না। হাপানিয়া এলাকার স্লুইস গেটটির সব দরজা খোলা হলে ওপরের পানির চাপ কমে যাবে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা