kalerkantho

সোমবার । ৩ কার্তিক ১৪২৭। ১৯ অক্টোবর ২০২০। ১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

বাল্যবিয়ের শিকার স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

অনলাইন ডেস্ক   

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১১:১০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাল্যবিয়ের শিকার স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

জোর করে বাল্যবিয়ের শিকার পিংকি আক্তার নামে ১৪ বছর বয়সী এক স্কুলছাত্রী আত্মহত্যা করেছে নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলায়।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার চাঁদখানা ইউনিয়নের বসুনিয়া পাড়া গ্রামে মেয়েটির নানাবাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

পিংকি একই ইউনিয়নের বোর্ড অফিসপাড়া গ্রামের কৃষক রাজু মিয়ার মেয়ে ও চাঁদখানা দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

কিশোরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল আউয়াল বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, পিংকির আত্মহত্যার ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা নিয়ে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য জেলার মর্গে পাঠানো হয়েছে।

জানা গেছে, ২ দিন আগে পিংকির সঙ্গে বিয়ে হয় নীলফামারী সদরের চাপড়া সরনজামী ইউনিয়নের লতিফ চাপড়া গ্রামের সাঈদুল ইসলামের ছেলে লাজু মিয়ার (২৫)। লাজু মিয়া উত্তরা ইউপিজেডের একটি কারখানার শ্রমিক।

পিংকির অমতেই পরিবারের লোকজন পিংকিকে বিয়ে দেয়। বাল্যবিয়ে হলেও প্রথম দিন তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে দেয়া হয়নি। বাবার বাড়ি ছেড়ে পিংকি তার নানা শাহাদৎ হোসেনের বাড়িতে গেলে বুধবার জামাই লাজু মিয়াও পিংকির নানার বাড়িতে পাঠানো হয়। সেখানে তার স্বামী রাতে অবস্থান করে। এ অবস্থায় সবার অগোচরে সে ঘরের ভেতর আত্মহত্যা করে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা