kalerkantho

মঙ্গলবার । ১১ কার্তিক ১৪২৭। ২৭ অক্টোবর ২০২০। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

চাকরি দেওয়ার নাম করে ১০ লাখ টাকাও নিয়েছেন ইব্রাহীম, অবশেষে ধরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ২২:৫৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চাকরি দেওয়ার নাম করে ১০ লাখ টাকাও নিয়েছেন ইব্রাহীম, অবশেষে ধরা

সরকারি-বেসরকারি ব্যাংকে চাকরি দেওয়ার নাম করে বেকার যুবকদের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে চট্টগ্রাম মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ অভিযান চালিয়ে মো. ইব্রাহীম নামের একজনকে গ্রেপ্তার করেছে। তার বিরুদ্ধে বেকার যুবকদের কাছ থেকে ৭০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ পেয়েছে গোয়েন্দা পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার সকালে চট্টগ্রাম মহানগরীর চান্দগাঁও থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

তার কাছ থেকে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নিয়োগপত্র, চেক ও স্টাম্প উদ্ধার করা হয়েছে। এই পর্যন্ত ১৫ জন ভুক্তভোগীর সন্ধান পাওয়া গেছে। সবার কাছ থেকে নেওয়া টাকার পরিমাণ প্রায় ৭০ লাখ। এই প্রতারক কৌশলে বেকার যুবকদের সঙ্গে প্রতারণা করতেন। বাংলাদেশ ব্যাংক, চট্টগ্রাম বন্দর, ডাচ বাংলা ব্যাংক, এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি দেওয়ার নাম করে ১০ লাখ টাকা থেকে সর্বনিন্ম এক লাখ ৬০ হাজার টাকা পর্যন্ত হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেছেন তিনি। চট্টগ্রাম, ঢাকা, কুমিল্লা ও কক্সবাজারসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের যুবকদের সঙ্গে এই প্রতারণা করা হয়েছে।

প্রতারক গ্রেপ্তারের বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের উপ-কমিশনার (বন্দর) এস এম মোস্তাইন হোসেন। তিনি বলেন, চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে যুবকদের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার মূল হোতা মো. ইব্রাহীম। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি স্বীকার করেছেন, কারো কাছ থেকে ১০ লাখ টাকা এবং কারো কাছ থেকে এক লাখ ৬০ হাজার টাকা নিয়েছেন তিনি। কিন্তু কাউকে চাকরি দেননি। গোয়েন্দা কর্মকর্তা মোস্তাইন হোসেন আরো বলেন, এই চক্রে আরো সদস্য রয়েছে। তাদের খোঁজা হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে তাদেরও গ্রেপ্তার করা হবে।

একই বিষয়ে অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (বন্দর) মোহাম্মদ আবু বকর সিদ্দিক বলেন, একজন ভুক্তভোগীর অভিযোগ যাচাই-বাছাইকালে মো. ইব্রাহীমকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর পর্যায়ক্রমে ১৫ জন ভুক্তভোগী অভিযোগ নিয়ে আসেন। সবার কাছ থেকে নেওয়া টাকার পরিমাণ প্রায় ৭০ লাখ টাকা। এছাড়া ইব্রাহীমের বিরুদ্ধে পাঁচটি প্রতারণার মামলার তথ্য পাওয়া গেছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা