kalerkantho

সোমবার । ৩ কার্তিক ১৪২৭। ১৯ অক্টোবর ২০২০। ১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

স্কুলছাত্রী ধর্ষণ মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

আড়াইহাজার (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ২০:২৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্কুলছাত্রী ধর্ষণ মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

আড়াইহাজারে মেধাবী এক স্কুলছাত্রীকে অপহরণ করে ধর্ষণের ঘটনার আট বছর পর ধর্ষক নাঈম হাসানকে (২৮) যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ শাহীন চাঞ্চল্যকর এ মামলার রায় ঘোষণা করেন। রায়ে অপহরণ ও নারী ও শিশু নির্যাতন উভয় অভিযোগে পৃথকভাবে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডসহ অভিযুক্তকে দুই লাখ করে চার লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

জরিমানার চার লাখ টাকার মধ্যে দুই লাখ টাকা ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রীর পরিবারকে দেওয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছে আদালত। রায়ের সময় ধর্ষক নাঈম আদালতে উপস্থিত ছিলেন না।

ধর্ষিতার বাবা বাদি হয়ে মামলা করেছিলেন। দণ্ডিত নাঈম হাসান স্থানীয় ব্রাহ্মন্দী ইউনিয়নের উজান গোবিন্দী গ্রামে আব্দুর রউফ (রূপ মিয়ার) ছেলে।

রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে বাদি পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট কাজী আব্দুস সেলিম জানান, ধর্ষণের ঘটনায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রদান সহ দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। একই সঙ্গে অপরহণের ঘটনায়ও যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

সপ্তম শ্রেণির ওই ছাত্রী স্কুলে যাওয়ার পথে রাস্তা থেকে অস্ত্রের মুখে তাকে অপহরণ করে রূপগঞ্জের পারাগাঁও এলাকায় নিয়ে ধর্ষণ করা হয়। পরে তাকে অজ্ঞান অবস্থায় তার বাড়ির সামনের রাস্তায় ফেলে বীরদর্পে চলে যায় ধর্ষক নাইম হাসান। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নারী নির্যাতন প্রতিরোধ সেলে রেখে চিকিৎসা প্রদান করেন। পরে ধর্ষিতার বাবা বাদি হয়ে অপহরণ ও ধর্ষণের দায়ে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে আড়াইহাজার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে চাঞ্চল্যকর এ মামলার রায় ঘোষণা করে আদালত।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা