kalerkantho

বুধবার । ৮ আশ্বিন ১৪২৭ । ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০। ৫ সফর ১৪৪২

ইভটিজিংয়ে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

আগৈলঝাড়া (বরিশাল) প্রতিনিধি   

১২ আগস্ট, ২০২০ ১৫:৫৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইভটিজিংয়ে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

বরিশালের আগৈলঝাড়ায় অষ্টম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ অভিযোগে মঙ্গলবার রাতে প্রেমিক জিহাদ সরদারসহ তিন জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন ওই স্কুলছাত্রীর মা। মামলার প্রধান আসামি জিহাদ সরদারকে পুলিশ মঙ্গলবার রাতে গ্রেপ্তার করে বুধবার সকালে বরিশাল আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

স্থানীয় ও মামলার তদন্তকারী অফিসার এসআই শাহজাহান জানান, উপজেলার  রত্নপুর ইউনিয়নের বারপাইকা গ্রামের জহির শাহ-এর মেয়ে মহিমা আক্তার (১৪)। পার্শ্ববর্তী বাগধা ইউনিয়নের আস্কর গ্রামের আক্কেল সরদারের ছেলে জিহাদ সরদার (২০) ওই স্কুলছাত্রীকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। মহিমা প্রেমের প্রস্তাব ফিরিয়ে দেয়। এরপর থেকে জিহাদ ও তার বন্ধুরা মিলে স্কুলছাত্রীকে বিভিন্ন ধরণের অশ্লীল কথা ও হুমকি দিয়ে আসছিল। জিহাদ ও তার বন্ধুদের কথা সহ্য করতে না পেরে গত ৭ জুলাই মাহিমা আত্মহত্যা করে।

এঘটনায় স্কুলছাত্রী মহিমা আক্তারের মা সাবিনা বেগম বাদী হয়ে গতকাল মঙ্গলবার রাতে জিহাদ সরদারকে প্রধান আসামি করে আগৈলঝাড়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

এব্যাপারে মামলার বাদী সাবিনা বেগম সাংবাদিকদের বলেন, জিহাদ সরদারের কারণে আমার মেয়ে আত্মহত্যা করতে বাধ্য হয়েছে। তাই জিহাদ সরদারের বিচারের জন্য আমি মামলা দায়ের করেছি। যাতে আমার মেয়ের মত আর কোন মেয়ের জীবন দিতে না হয়।

এব্যপারে আগৈলঝাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আফজাল হোসেন বলেন, ছাত্রীর মা মঙ্গলবার রাতে মামলা দায়ের করেছেন। মামরার প্রধান আসামি জিহাদ সরদারকে গ্রেপ্তার করে আসামিকে বুধবার সকালে বরিশাল আদালতে পাঠানো হয়েছে। আদালতের নির্দেশে তাকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা