kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৬ আশ্বিন ১৪২৭ । ১ অক্টোবর ২০২০। ১৩ সফর ১৪৪২

সিলেটে দুই বাড়িতে অভিযান, বোমা তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার

সিলেট অফিস   

১২ আগস্ট, ২০২০ ০১:০৪ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সিলেটে দুই বাড়িতে অভিযান, বোমা তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার

সিলেট নগরের জালালাবাদ ও টিলাগড়ের শাপলাবাগ আবাসিক এলাকার পৃথক দুটি বাসায় অভিযান চালিয়েছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। এসময় জালালাবাদ এলাকার একটি বাসা থেকে বোমা তৈরির সরঞ্জাম ও জঙ্গি তৎপরতায় ব্যবহৃত কম্পিউটার উদ্ধার করা হয়েছে। আর টিলাগড় এলাকার বাসা থেকে কয়েকটি কম্পিউটার জব্দ করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে অভিযান চালিয়ে এসব উদ্ধার করা হয়।

জানা যায়, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টায় নগরের জালালাবাদ আবাসিক এলাকার ৪৫/১০নং বাসায় অভিযান চালায় সিটিটিসির একটি দল। তাদের সঙ্গে স্থানীয় পুলিশ ও র‌্যাবের সদস্যরা ছিলেন। এ বাসায়ই থাকতেন আগের দিন আটক হওয়া নব্য জেএমবির সদস্য সামিউল ইসলাম সাদী। এসময় বাসা থেকে বোমা তৈরির সরঞ্জাম এবং কম্পিউটার উদ্ধার করে নিয়ে যায় পুলিশ। উদ্ধারকৃত কম্পিউটারে বোমা তৈরির বেশ কিছু ভিডিও ছিল।

স্থানীয় ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আফতাব হোসেন খান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘অভিযানের সময় আমিও উপস্থিত ছিলাম। এসসয় বাসা থেকে বোমা তৈরির সরঞ্জাম এবং কম্পিউটার উদ্ধার করে নিয়ে যায় পুলিশ। উদ্ধারকৃত কম্পিউটারে বোমা তৈরির বেশকিছু ভিডিও ছিল।’

এদিকে, রাত সাড়ে ৯টায় নগরের টিলাগড়ের শাপলাবাগ আবাসিক এলাকার ৪০/এ ‘শাহ ভিলা’ নামের বাসায় অভিযান চালায় সিটিটিসির অপর একটি দল। সেখানে একটি কম্পিউটার সেন্টারের সন্ধান পায় তারা। সেখান থেকে কয়েকটি কম্পিউটার জব্দ করা হয়।

‘শাহ ভিলা’র মালিক শাহ মো. শামদ আলী জানিয়েছেন, আগের দিন সিটিটিসির হাতে আটক নাইম ও সায়েম তার বাসার চারতলার ফ্ল্যাটটি গত দুই মাস আগে কম্পিউটার সেন্টার বানানোর জন্য ভাড়া নিয়েছে। কিন্তু তারা সেখানে অবস্থান করে না।

অভিযানের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মহানগর পুলিশের শাহপরাণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী। তবে তিনি অভিযানের বিস্তারিত তথ্য জানাতে পারেননি।

প্রসঙ্গত, এর আগে সিলেট থেকে নব্য জেএমবির স্থানীয় কমান্ডারসহ ৫ জনকে আটক করে কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের একটি দল। গত রবিবার রাত থেকে মঙ্গলবার ভোর পর্যন্ত নগরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে গতকালই ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন এ ব্যাপারে কিছু না বললেও অভিযান সংশ্লিষ্ট একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন আটককৃতরা হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজারে জঙ্গি হামলার পরিকল্পনা করছিল। 

জানা গেছে, আটক ৫ জনকে ঢাকায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে সিটিটিসি। প্রাথমিকভাবে তাদের কাছ থেকে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্যও পেয়েছে। এরপর নগরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী।

সিটিটিসি দল যে ৫ জনকে আটক করে ঢাকায় নিয়ে গেছে তাদের মধ্যে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) দুই শিক্ষার্থী রয়েছেন। তাদের একজনের নাম নাইমুজ্জামান। তিনি নব্য জেএমবি’র সিলেট আঞ্চলিক কমান্ডার। অপরজনের নাম সানাউল ইসলাম ওরফে সাদী। আটক আরেকজনের নাম মীর্জা সায়েম। তিনি মদন মোহন কলেজের ছাত্র বলে জানা গেছে। বাকি দুজনের পরিচয় জানা যায়নি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা